• ঢাকা
  • সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৬, ২০২৩, ১১:৪৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২৬, ২০২৩, ১১:৪৩ পিএম

উইম্বলডন

ফাইনালে বেলারুশের টেনিসকুইন সাবালেঙ্কা

ফাইনালে বেলারুশের টেনিসকুইন সাবালেঙ্কা
ছবি ● সংগৃহীত

গ্র্যান্ড স্লামের সেমিফাইনাল ম্যাচ যেন তার জন্য ধাঁধা। অতীতে তিনবার টেনিসের মেজর এই প্রতিযোগিতায় শেষ চারের গণ্ডিতে আটকে গিয়েছিলেন আরিয়ানা সাবালেঙ্কা। অবশেষে সেমির বৈতরণী পার করে স্বপ্নের ফাইনালে বেলারুশের এ টেনিস ‘কুইন’।

বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) মেলবোর্নের রড লেভার অ্যারেনায় নারী এককের সেমিফাইনালে সাবালেঙ্কা ৭-৬ (৭/১), ৬-২ গেমে হারান পোল্যান্ডের মাগদা লিনেটকে; যিনি কিনা এবারের প্রতিযোগিতায় একের পর এক চমক দেখিয়েছেন। 

শনিবার (২৮ জানুয়ারি) ফাইনালে উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন এলেনা রিবাকিনার মুখোমুখি হবেন সাবালেঙ্কা। শেষ চারে বেলারুশের ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কাকে ৭-৬ (৭/৪), ৬-৩ গেমে হারিয়ে শিরোপা মঞ্চে ওঠেন ২২তম বাছাই কাজাখস্তানের রিবাকিনা।

বছরের শুরু থেকে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা সাবালেঙ্কাকে চ্যালেঞ্জ জানান প্রথমবার কোনও গ্র্যান্ড স্লামের শেষ চারে ওঠা পোল্যান্ডের অবাছাই লিনেট। প্রথম সেটে দারুণ লড়াই করেন তিনি। তবে টাইব্রেকারে ওই সেট হারের পর আর কোনও প্রতিদ্বন্দ্বিতাই গড়তে পারেননি লিনেট। এই আসর তো বটেই, এ বছর এখন পর্যন্ত ১০ ম্যাচ খেলা সাবালেঙ্কা একটিতেও হারেননি। শুধু তাই নয়, কোনও ম্যাচে একটি সেটও হারেননি বেলারুশের এ টেনিস কন্যা। 

এককে প্রথম গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের হাতছানি, উচ্ছ্বাসটি একটু বেশিই সাবালেঙ্কার, 'আমি খুব খুব খুশি। কারণ আমি এই ম্যাচটি জিতেছি। মাগদা অসাধারণ খেলোয়াড়। তিনি সত্যিই চমৎকার টেনিস খেলছেন। শুরুটা আমার ভালো ছিল না। টাইব্রেকারে যাওয়ার পর আমি ছন্দে ফিরি। রিদমটাও ফিরে পাই। আমার কাছে এই ম্যাচটি অন্যরকম। কারণ প্রথমবার এককের ফাইনালে উঠেছি।'

২০১৯ সালে দ্বৈতে ইউএস ওপেন জেতার পর ২০২১ সালে এই অস্ট্রেলিয়াতেও জুটি বেঁধে শিরোপা জিতেছিলেন সাবালেঙ্কা। এবার এককে চূড়ায় ওঠার সামনে তিনি।

জাগরণ/খেলা/টেনিস/কেএপি