• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৩০ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: নভেম্বর ৮, ২০১৯, ১১:২৮ এএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ৮, ২০১৯, ১১:২৮ এএম

ব্রুনাই জাতীয় দলের কোচ হলেন পল স্মলি

ক্রীড়া ডেস্ক
ব্রুনাই জাতীয় দলের কোচ হলেন পল স্মলি
বাফুফের সাবেক টেকনিক্যাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক ডিরেক্টর পল স্মলি। ফটো: সংগৃহীত

চুক্তির দ্বিতীয় মেয়াদের এক বছর শেষ হওয়ার আগেই বাফুফের টেকনিক্যাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক ডিরেক্টরের পদ থেকে পদত্যাগ করা পল থমাস স্মলি ব্রুনাই জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। একইসঙ্গে তিনি বয়সভিত্তিক দলগুলোর সাথে কোচেস এডুকেশন নিয়েও কাজ করবেন।

ব্রিটিশ বংশোদ্ভূত এই অস্ট্রেলিয়ান চেয়েছিলেন দীর্ঘ মেয়াদে জাতীয় দলের দায়িত্বে কাজ করতে। যদিও বাফুফে নির্বাচনের দোহাই দিয়ে তার সঙ্গে নতুন করে চুক্তি সম্পাদন করা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছিলেন কাজী সালাউদ্দিন। 

স্মলির বিদায়ে বাফুফের বিভিন্ন বিভাগের কাজে অসম্পূর্ণতা এখন সামনে চলে এসেছে। সবচেয়ে বড় ক্ষতিটা হয়েছে কোচেস কোর্সে। এএফসি এ লাইসেন্স কোর্সের প্রথম অংশ শেষ হলেও বাকি ধাপগুলো নিয়ে অনিশ্চতা আছে। দুই বছরে দেশের ফুটবল কৌশল ও নীতি নির্ধারণে কাজ করেছেন স্মলি। একইসঙ্গে নারী দলের কোচিংয়েও তিনি জড়িত ছিলেন।

পল স্মলির বাংলাদেশ থেকে চলে যাওয়া প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন বলেছিলেন, আগামী এপ্রিলে বাফুফের নির্বাচন। তখন কি হবে কে জানে। সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য চুক্তি যথেষ্ট নয়। আর আমাদের মেয়াদ যেহেতু ৬ মাস আছে, তাই তার সঙ্গে আমরা চার বছরের চুক্তি করতে পারি না। ফেডারেশনের মধ্যেই অনেকে এ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

পল স্মলিকে ধরে রাখতে না পারা নিয়ে কাজী সালাউদ্দিন বলেছিলেন, পল আমাদের ফুটবলে তিন বছর অনেক কাজ করেছেন। জাতীয় দলগুলোর কোচ নিয়োগের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। তার কারণেই আমাদের মেয়েদের ফুটবলে অভাবনীয় উন্নতি হয়েছে। মেয়েরা যে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছিল, তার পেছনে পলের অনেক অবদান ছিল। আশা করি, পলের সঙ্গে ভবিষ্যতে কাজ করতে পারবো।

নিজের পদত্যাগের বিষয়ে পল স্মলি বাংলাদেশ ছাড়ার আগে বলেছিলেন, আমি তিন বছর বাংলাদেশ ফুটবল নিয়ে কাজ করেছি। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ অনেকের সহযোগিতাও পেয়েছি। এখন ব্যক্তিগত কারণেই আমি আর চুক্তি বাড়াচ্ছি না। আমি ক্যারিয়ারে পরিবর্তন আনতেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

কাজী সালাউদ্দিন আবারো সভাপতি হলে আবারো বাংলাদেশে আসবেন জানিয়ে তিনি বলেন, নতুন জায়গায় চুক্তিবদ্ধ হয়ে যোগ দিলেও আমি যখন চাইবো তখন সেখান থেকে বিদায় নিতে পারবো। বিষয়টি আমার জন্য খোলা থাকবে। তাই আমার আসতে কোনো সমস্যা হবে না।

তবে এখন বাস্তবতা হলো আগামী এপ্রিলে বাফুফের নির্বাচনে কাজী সালাউদ্দিন আবারো সভাপতি নির্বাচিত হলেও পল স্মলির বাংলাদেশ ফেরার কোনো সুযোগ নেই। তাই বাফুফে টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের শূন্য পদ আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই পূর্ণ করতে চায়।

আরআইএস 

আরও পড়ুন