• ঢাকা
  • শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: নভেম্বর ১৪, ২০১৯, ১০:৪৩ এএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ১৪, ২০১৯, ০২:৪৭ পিএম

বিশ্বকাপ ফুটবল বাছাইপর্ব

বাংলাদেশের সামনে এবার ওমান বাধা

মাহমুদুল হাসান বাপ্পি
বাংলাদেশের সামনে এবার ওমান বাধা
ওমানের বিপক্ষে নিজেদের সেরাটা দিতে প্রস্তুত বাংলাদেশ ফুটবল দল। ফটো : সংগৃহীত

এই ক’দিন আগেও চারদিকে ছিল হায় হায় রব। হারানোর যন্ত্রণায় চারদিকে হা-হুতাশ। ফুটবল পাড়ায় কান পাতলেই শোনা যেতো স্বর্ণালী দিন হারানোর বেদনা। জ্যোৎস্নাটা ফেরার প্রতিশ্রুতি দিয়ে নিয়ে এসেছিল যে অমাবস্যা, তা যেন আলো ছড়াতে দিচ্ছিল না কিছুতেই। 

কদিনে বদলে যায়নি সব। চারদিকে ঘোমট হয়ে থাকা অন্ধকার কাটেনি পুরো, তবে আগের অবস্থাটা বদলেছে খানিকটা। এখন পুরো জ্যোৎস্নার দেখা না মিললেও মাঝে মধ্যেই ঝলকানি দেখায় মৃদু আলো। টঙ দোকানে কান পাতলে হরহামেশাই শোনা যায় জামাল ভূঁইয়াদের গল্প করছেন কিশোর-যুবক কিংবা বৃদ্ধ হওয়ার অপেক্ষায় থাকা কেউ। 

ফেসবুকে এসে এখন জামাল ভূঁইয়া নিয়মিতই ভক্তদের উদ্দেশ্যে কিছু বলে যান। নতুন শতকে জন্ম নেয়া কারোই সেই সৌভাগ্য হয়নি, কখনো কোনো ফুটবলারকে নিয়ে এত আগ্রহের ছিঁটেফোটাও তাদের নজরে আসেনি। তবে প্রেক্ষাপট এখন বদলে গেছে।

বদলে দিয়েছে ২০২২ কাতার বিশ্বকাপ বাছাইয়ের তিন ম্যাচ। যার দুটি ঘরের বাইরে, আর একটি নিজেদের ডেরায়। আফগানিস্তানের বিপক্ষে দুশানবেতে ১-০ গোলে হেরে যে বাছাইপর্বের শুরু ঘরের মাঠে কাতারের বিপক্ষে ২ গোলের হার হয়ে সেটা এখন আটকে আছে ভারতকে তাদের মাঠেই ‍রুখে দেয়ার স্মৃতি পর্যন্ত। 

আর কয়েক ঘণ্টা পেরোলেই তা স্মৃতি থেকে দূরে সরে যাবে আরেকটু। কারণ আজ ১৪ নভেম্বর বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের চতুর্থ ম্যাচ খেলতে নামবে বাংলাদেশ। এবারের বাধাটা বাকি তিন ম্যাচের চাইতেও বেশি। আগের তিন ম্যাচে সবচেয়ে শক্তিশালী প্রতিপক্ষ ছিল আগামী বিশ্বকাপের স্বাগতিক কাতার। তাদের বিপক্ষে ২-০ গোলে হারলেও পারফরম্যান্স দিয়ে মুগ্ধ করা গেছে সবাইকে। তবে সেটা ছিল নিজেদের মাঠে। 

এবারের প্রতিপক্ষ এমনিতেই বাংলাদেশের চেয়ে ফিফা র‌্যাংকিংয়ে আছে ১০০ ধাপ এগিয়ে, তার উপর খেলতে হবে তাদেরই মাঠে। কেবল তাই নয়, বিশ্বকাপ বাছাইয়ের তিন ম্যাচ খেলে বাংলাদেশ যেখানে হজম করেছে চার গোল, ওমান সেখানে দুইটি। এই পরিসংখ্যানে যদি খুব বেশি পার্থক্য বোঝা না যায় তাহলে তিন ম্যাচে ওমান প্রতিপক্ষের জালে বল জড়িয়েছে ছয়বার, আর বাংলাদেশ একবার। 

শক্তিমত্তায় তাই নিশ্চিতভাবেই এগিয়ে থেকেই মাঠে নামবে ওমান। তবে পরিসংখ্যান দিয়ে তো আর মাঠের ফুটবল হয় না। ওমানের বিপক্ষে যদি লাল সবুজের প্রতিনিধিরা আবারও পুনরাবৃত্তি ঘটাতে পারে কলকাতার সল্ট লেক স্টেডিয়ামের সেই নান্দনিক ফুটবলের, তাহলে আবারও নিশ্চয়ই যুব ভারতীয় ক্রীড়াঙ্গনের মতোই স্তব্ধ করে দেয়া যাব মাস্কটকেও। আর অধিনায়ক জামাল তো কথা দিয়েই রেখেছেন, প্রবাসীরা যদি মাঠে আসেন তাহলে তারাও দেবেন তার প্রতিদান। 

এমএইচবি/আরআইএস 

আরও পড়ুন