• ঢাকা
  • শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: জুলাই ৪, ২০১৯, ০৯:১১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ৪, ২০১৯, ০৯:১১ পিএম

ডিএসসিসি’র বিনামূল্য অ্যাম্বুলেন্স সেবা চালু 

জাগরণ প্রতিবেদক 
ডিএসসিসি’র বিনামূল্য অ্যাম্বুলেন্স সেবা চালু 
দয়াগঞ্জ ইসকন মন্দিরে বক্তব্য রাখেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেছেন, রাজধানীতে কেউ মারা গেলে মরদেহ বহনের জন্য দ্রুত অ্যাম্বুলেন্সের প্রয়োজন পড়ে। অনেক সময় টাকার অভাবে অনেকেই সেই সুবিধাটুকু নিতে পারেন না। তাই তাদের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছেন।  

তিনি বলেন, নগরবাসী অনেক সময় তাদের আত্মীয়-স্বজন মারা গেলে অ্যাম্বুলেন্সের খোঁজ করেন। কিন্তু, কোথায় খুঁজবেন? আবার কেউ টাকার সংস্থান করতে না পারায় সেই সুযোগটুকু নিতে পারছেন না। আপনাদের কোথাও যেতে হবে না। ডিএসসিসি অ্যাম্বুলেন্স সেবা চালু করেছে, ফোন করুন মরদেহ যেখানে নেয়া প্রয়োজন সেখানে পৌঁছে দেব আমরা। বিনামূল্য নগরবাসী এই সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।

বৃহস্পতিবার (০৪ জুলাই) রাজধানীর দয়াগঞ্জে ইসকন মন্দিরে রথযাত্রার উদ্বোধনের শুরুতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এই ঘোষণা দেন। রথযাত্রার উদ্বোধন করেন খাদ্যমন্ত্রী সাধান চন্দ্র মজুমদার। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ।

মেয়র বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা ধর্ম যার যার উৎসব সবার। আমরা সেই ব্রত নিয়ে ধর্মীয় উৎসব উদযাপন করি। নগর কর্তৃপক্ষও সব সময় সকল উৎসবে পাশে থাকার চেষ্টা করে। এরইমধ্যে হিন্দুদের শেষকৃত্য অনুষ্ঠান বিনামূল্যে করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া পোস্তগোলা শ্মশান ঘাটকে আধুনিক করা হয়েছে।

ইসকন মন্দিরে হিন্দু ধর্মালম্বীদের দাবির প্রেক্ষিতে মেয়র বলেন, প্রায় দেড়শ কোটি টাকা ব্যয়ে এই ইসকন মন্দির উন্নয়নে মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন আপনারা। মন্দিরের উন্নয়নে নগর কর্তৃপক্ষ আর্থিক অনুদান দেবে। আর যদি সরকারিভাবে বড় প্রকল্প গ্রহণের প্রয়োজন অনুভব করেন তাহলে আমাদের কাছে আসলে সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে বিষয়টি আলোচনা করে সমাধান করব। এই মন্দির হবে গোটা বাংলাদেশ তো বটেই আশাপাশের দেশের জন্য চমৎকার দৃষ্টান্ত।

হিন্দু ধর্মের অনুসারীদের শিশু সন্তান মারা গেলে দাফন করা হয় কিন্তু রাজধানীতে সেই জায়গা নেই বলে জানান মন্দিরের নেতারা। সেই দাবির প্রেক্ষিতে মেয়র বলেন, বিষয়টি আমার জানা ছিল না। তবে আপনারা যদি আশপাশে জায়গার ব্যবস্থা করেন বা যদি জায়গা থাকে। আর সেই জায়গা যদি সিটি করপোরেশনের হয় তাহলে আমি মুহূর্তের মধ্যে আপনাদের সেই জায়গার ব্যবস্থা করে দেব। আর যদি সরকারি অন্য সংস্থারও জায়গা ফাঁকা থাকে তাহলে আমাদের কাছে আসলে জায়গা অধিগ্রহণ করে তা বুঝিয়ে দেয়া হবে। এছাড়া যদি ব্যক্তি মালিকানায় জায়গা কিনতে হয় সেক্ষেত্রে ডিএসসিসি আর্থিক অনুদান দেবে।  

টিএইচ/বিএস