• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৯ আশ্বিন ১৪২৭
প্রকাশিত: আগস্ট ১১, ২০২০, ০৬:৪০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : আগস্ট ১১, ২০২০, ০৬:৪০ পিএম

উত্তরা-তেজগাঁও সড়কে থাকছেনা ট্রাফিক সিগন্যাল

জাগরণ ডেস্ক
উত্তরা-তেজগাঁও সড়কে থাকছেনা ট্রাফিক সিগন্যাল

নির্বিঘ্নে যানবাহন ছুটে যাবে গন্তব্যে। থাকবে না কোন লাল বাতির নির্দেশনা। থ্রিডি অ্যানিমেশনে ২০১৬ সালে এমন রূপকল্প ঢাকাবাসীর সামনে এনেছিলেন প্রয়াত মেয়র আনিসুল হক। কাজও শুরু হয়েছিল। কথা ছিল ঢাকার উত্তর থেকে তেজগাঁও পর্যন্ত এ পথে করা হবে এমন ১১টি ইউটার্ন। আনিসুল হকের মৃত্যুর পর বন্ধ হয়ে যায় সেকাজ। চারবছর পর আবারও শুরু হয়েছে তা।

চার বছর থমকে থাকার পর আবারও শুরু হয়েছে ঢাকা উত্তর থেকে তেজগাঁও সড়কের ইউটার্নের নির্মাণ কাজ। আগের পরিকল্পনায় ১১টি ইউ-টার্ন হওয়ার কথা থাকলেও, এখন হবে ১০টি।

মঙ্গলবার সে কাজের পরিদর্শনে গিয়ে উত্তর সিটির মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, চলতি বছরের মধ্যে শেষ হবে এই প্রকল্প। উত্তরা থেকে তেজগাঁও পর্যন্ত ইউলুপের কাজ শেষ হলে এই পথের ৭০ শতাংশ যানজট কমে যাবে বলেও আশা করেন মেয়র আতিক।

তিনি বলেন, 'ঢাকার উত্তরের সঙ্গে দক্ষিণের যাতায়াতে কয়েকটি মোড়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। আমরা সেই যানজট দূর করার উদ্যোগ নিয়েছি। কোনও ধরনের ট্রাফিক সিগন্যাল ছাড়াই এই উত্তরা থেকে সাত রাস্তা পর্যন্ত যানবাহন চলবে।'

মেয়র বলেন, এই সড়কে ১১টি ইউলুপ নির্মাণের পরিকল্পনা ছিল। এখন ১০টি বাস্তবায়ন হচ্ছে। এগুলো হচ্ছে- উত্তরা রাজলক্ষ্মী, উত্তরা র‌্যাব-১ অফিসের সামনে, কাওলা, বনানী ওভারপাসের নিচে, বনানী কবরস্থান ও কাকলী মোডের মাঝখানে, বনানী চেয়ারম্যানবাড়ী, মহাখালী মোড়, মহাখালী বাস টার্মিনাল, নাবিস্কো মোড় ও বিজি প্রেস অফিস।

এই পথের সবখানে রাস্তার প্রস্থ এক নয়। সেখানে কিভাবে সম্ভব হবে এমন বড় ইউ টার্নের? এর জবাব দেন উত্তর সিটির প্রধান প্রকৌশলী। তিনি জানান, যে জায়গায় সরু আছে সে জায়গায় বি-টাইপ ইউলুপ হবে। এ-টাইপের জন্য প্রসস্থ জায়গা লাগে। বি-টাইপের জন্য সরু জায়গা হলেও চলে।

এই প্রকল্পে আগে ব্যয় ধরা হয়েছিলো ২৪ কোটি টাকা। এখন এটি হয়েছে ৩১ কোটি ৮০ লাখ ৯৭ হাজার টাকা।

এম

আরও পড়ুন