• ঢাকা
  • সোমবার, ২৩ মে, ২০২২, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২৭, ২০২১, ১২:৩৭ এএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ২৬, ২০২১, ০৬:৩৭ পিএম

চালু হলো ঢাকা নগর পরিবহন

চালু হলো ঢাকা নগর পরিবহন
সংগৃহীত ছবি

রাজধানীর গণপরিবহন ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা ফেরাতে চালু হলো বহুল প্রতিক্ষিত ‘এক রুট এক কোম্পানি’ বাস সার্ভিসের পরীক্ষামূলক চলাচল। 

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকা দক্ষিণের মেয়র ফজলে নূর তাপস বলেছেন, ২০২৩ সালের মধ্যে ঢাকার ৪২টি রুটে একইভাবে বাস সার্ভিস চালু হবে। 

ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, রাস্তায় বাসের ধাক্কাধাক্কির প্রতিযোগিতা বন্ধ করতে হবে। এ বিষয়ে কঠোর হতে ট্রাফিক পুলিশের প্রতি আহবানও জানান তিনি।

উদ্বোধনী বক্তৃতায় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সড়কের শৃঙ্খলা না ফিরলে যোগাযোগ খাতের সব অর্জন ম্লান হয়ে যাবে।

বিআরটিসির ৩০টি দ্বিতল বাস আর ট্রান্স সিলভা পরিবহনের ২০টি মিনিবাস দিয়ে শুরু হলো ঢাকা নগর পরিবহনের এক রুট এক কোম্পানি ধারণার প্রথম পরীক্ষামুলক চলাচল।

কেরানীগঞ্জের ঘাটারচর থেকে বসিলা, মোহাম্মদপুর, ধানমন্ডি, সায়েন্সল্যাব, নীলক্ষেত, আজিমপুর, চানখারপুর, গুলিস্তান, সায়েদাবাদ, যাত্রাবাড়ী হয়ে হয়ে কাঁচপুর পর্যন্ত দীর্ঘ ২৮ কিলোমিটারে চলবে ৫০টি বাস। 

যা কিছু দিনের মধ্যেই ১০০টিতে উন্নীত হবে বলে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জানানো হয়। নতুন নির্মিত বাস স্টপেজে থামবে বাসগুলো। সেখানে টিকেট কেটে সারিবদ্ধভাবে যাত্রীদের উঠতে হবে। 

এই রুটে চলা প্রতিটি গাড়ির চালক ও হেলপারের ইউনিফর্ম থাকবে। সবার ড্রাইভিং লাইসেন্স ও পরিচয়পত্র বাসে বাধ্যতামুলক ঝুলিয়ে রাখতে হবে। 

দক্ষিণের মেয়র জানান, পুরো মহানগরকে ৯টি ভাগে ভাগ করে তারা ৪২টি রুট ঠিক করেছেন। ২০২৩ সালের মধ্যে এই ৪২টি রুটেই একক পরিবহন ব্যবস্থার মধ্যে চলে আসবে।

তিনি বলেন, ২০২৩ সালের মধ্যে মেট্রো চলবে, তখন গণপরিবহন সুশৃঙ্খলভাবে চালাতে চাই। কোনও প্রতিযোগিতা না, ঠেলাঠেলি না, চাপাচাপি না, মানসম্পন্ন সেবা নিশ্চিতেই এই সেবা।

উত্তর সিটির মেয়র বলেন, ‘৯ হাজার ২৭টি মিনিবাস চলে ঢাকায়, চলে প্রতিযোগিতা। সড়কে শৃঙ্খলা নষ্ট হয়। বাস আর রুটকে একটা শৃঙ্খলা আনা গেলে পাল্টে যাবে এই চিত্র।

রোববার সকালে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েই ওবায়দুল কাদের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রনালয়ে যান। সেখান থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

দিনটি স্মরণীয় হয়ে থাকবে উল্লেখ করে তিনি স্মরণ করেন প্রয়াত মেয়র আনিসুল হককে, যিনি এ কার্যক্রম শুরু করেছিলেন।

কাদের বলেন, উন্নয়ন আর অর্জনের সঙ্গে এ নগরীর যে দুরবস্থা, অপরিচ্ছিন্ন-অপরিকল্পিত একটি শহর, এটি মানায় না। এই চিত্র না বদলালে সব অর্জন নষ্ট হয়ে যাবে।

উদ্বোধনী স্থল মোহাম্মদপুরের বেড়িবাঁধ মোড় থেকে দুই মেয়র টিকেট কেটে ধানমন্ডির শংকর পর্যন্ত বাসে যাত্রা করেন। 

জাগরণ/এসএসকে