• ঢাকা
  • বুধবার, ২৫ মে, ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
প্রকাশিত: মে ৮, ২০২২, ১১:৫৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ৮, ২০২২, ০৫:৫৬ পিএম

উদ্ধত আচরণ রেলমন্ত্রীর শ্বশুরকূলের

উদ্ধত আচরণ রেলমন্ত্রীর শ্বশুরকূলের
সংগৃহীত ছবি

রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজনের আত্মীয় পরিচয়ে দিয়ে বিনা টিকিটে ট্রেন ভ্রমণের ঘটনায় গণমাধ্যমের অবস্থানে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন মন্ত্রীর শ্বশুরকূলের আত্মীয়-স্বজন।

 

রোববার (৮ মে) দুপুরে এই ঘটনার মূল অভিযোগকারী ও রেলমন্ত্রীর স্ত্রী শাম্মি আকতার মনির ভাগ্নে ইমরুল কায়েস প্রান্ত তদন্ত কমিটির সঙ্গে সাক্ষাতে এসে সংবাদকর্মীদের দেখেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বিষোদগার করেন।

তিনি বলেন, ‘এটি গণমাধ্যম কর্মীদের বাড়াবাড়ি।’

এ সময় তিনি গণমাধ্যমকর্মীদের সরকার বিরোধী আখ্যায়িত করে ‘গণমাধ্যমই বাংলাদেশের একমাত্র বিরোধী দল’ বলে মন্তব্য করেন।

তবে উপস্থিত স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীরা তাকে সেই দিনের ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কোনও কথা বলে রাজি হননি।

তিনি বলেন, ‘আগে আমি তদন্তকারী কর্মকর্তাদের সাথে দেখা করে তারপরে আপনাদের সাথে কথা বলবো। কারণ আমি জানি আপনাদের নানা ধরনের প্রশ্নের উত্তর আমাকে দিতে হবে।’

কথা শেষ না হতেই তিনি সেখান থেকে চলে গিয়ে বিভাগীয় রেল কন্ট্রোল রুমের কক্ষে গিয়ে বসে থাকেন। তখন স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে তিনি উদ্ধত আচরণ করেন।

এসময় তিনি বলেন, গত কয়েকদিন ধরে গণমাধ্যমকর্মীদের ফোনে বিভিন্ন প্রশ্নে আমি ও আমার পরিবার বিরক্ত ও বিব্রত। আমরা সামগ্রিক বিষয়টিকে ইতিবাচকভাবেই দেখছিলাম। অথচ সাংবাদিকরা সামান্য একটি বিষয়কে অহেতুক টানা-হেঁচড়া করে বিষয়টি বড় করেছেন।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে তিনি আরও বলেন, ‘আপনারা এই এ বিষয়টি নিয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করছেন। যেটা না করলেও পারতেন। আমি যা বলার তদন্ত কমিটিকে বলেছি। আপনাদের সঙ্গে আমার কোনও কথা নেই এখন।’

তবে অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘যে অভিযোগ আমি দিয়েছি সেটি সঠিক ছিল। ওই টিটিই আমাদের সাথে খারাপ আচরণ করেছেন। রেলমন্ত্রী তার সম্পর্কে কি ধরনের আত্মীয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তাকে জড়িয়ে প্রশ্ন না করাই ভালো। কারণ তার সাথে এটার কোনও সম্পর্ক নেই। আপনারা শুধু শুধু তাকে নিয়ে আমাকে প্রশ্ন করছেন। আত্মীয় হলেই কি তাকে নিয়ে প্রশ্ন করতে হবে?’

ঈশ্বরদী পৌরসভার নূর মহল্লায় ইমরুল কায়েসের বাড়ির এলাকায় গণমাধ্যমকর্মীরা সংবাদ সংগ্রহে গেলে তাদের উদ্দেশে অশ্লীল ও অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করতে থাকেন রেলমন্ত্রীর শ্বশুরকূলের লোকজন।

সেখানে উপস্থিত সংবাদকর্মীরা জানান, ওই মহল্লায় পৌঁছানোর পর পরই তাদের উদ্দেশে তেড়ে আসে কয়েকজন যুবকসহ এক নারী। এ সময় তাদের গালিগালাজের মুখে বাড়ির লোকজনের কথা না শুনেই ফিরে আসতে বাধ্য হন তারা।

জাগরণ/যোগাযোগ/এসএসকে