• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল, ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬
প্রকাশিত: মার্চ ২২, ২০২০, ০৫:১১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ২২, ২০২০, ০৬:০৭ পিএম

‘দেশে এখনও কমিউনিটি সংক্রমণের প্রমাণ মেলেনি’

জাগরণ প্রতিবেদক
‘দেশে এখনও কমিউনিটি সংক্রমণের প্রমাণ মেলেনি’
সংবাদ সম্মেলনে মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরাসহ অন্যান্যরা ● টিভি থেকে নেয়া

দেশে কোভিড-১৯ আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৫ জন। এ তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ড. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

রোববার (২২ মার্চ) বিকাল সাড়ে ৩টায় রাজধানীর বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ান্স অ্যান্ড সার্জন্স (বিসিপিএস) মিলনায়তনে প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান তিনি।

ফ্লোরা দাবি করে বলেন, ভাইরাস কমিউনিটির মধ্যে ছড়িয়েছে, তা এখনও নিশ্চিতভাবে বলা যাবে না।

তিনি বলেন, ‘‘কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হয়েছে কিনা তা যাচাই করতে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হওয়া নিউমোনিয়া রোগীদেরও আমরা করোনাভাইরাস পরীক্ষা করি। সম্পূর্ণ নিশ্চিত না হয়ে আমরা বলতে পারবো না কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হয়েছে কিনা।’’

শনিবার (২১ মার্চ) দিবাগত মধ্যরাতে সিলেটে মারা যাওয়া নারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন কিনা, তার পরীক্ষা চলছে বলে নিশ্চিত করেন তিনি।

‘ওই ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে এবং তা পরীক্ষা করা হচ্ছে। তবে যেহেতু সম্দেহ করা হচ্ছিল যে তিনি করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন, তাই প্রটোকল অনুসরণ করেই তার সৎকার করা হয়েছে।’

এছাড়া মিরপুরে শনিবার (২১ মার্চ) মারা যাওয়া ব্যক্তির দেহে কীভাবে করোনাভাইরাস এসেছে সে বিষয়েও খোঁজ নেয়া হচ্ছে বলে জানান মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

"ওই ব্যক্তি রোগের উপসর্গ দেখা দেয়ার ১৪ দিন আগে থেকে কার কার সংস্পর্শে এসেছিলেন আমরা সেসব তথ্য নিচ্ছি। তিনি যেসব জায়গায় গিয়েছিলেন সেখানকার সিসিটিভি ফুটেজ ও যাচাই করছি।

তিনি জানান এভাবে তথ্য সংগ্রহ করে তারা সংক্রমণের উৎস খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন, যেন পরবর্তী সংক্রমণ ঠেকানো সম্ভব হয়।

আইডিসিআরের পরিচালক বলেন শতভাগ নিশ্চিত না হয়ে কমিউনিটি ট্রান্সমিশন সম্পর্কে কোনও তথ্য জানানো হলে তা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা মানবে না।

তিনি জানান, আগে আক্রান্তদের মধ্যে থেকে ২ জন এবং নতুন আক্রান্তদের মধ্যে থেকে আরও ৩ জনসহ মোট ৫ জন সুস্থ হয়েছেন।

পরপর দু’টি পরীক্ষায় নেগেটিভ আসলে ‘কোভিড’মুক্ত বলে ঘোষণা করা হয়।  

তিনি জানান, মোট আক্রান্তদের মধ্যে তিনজন আগেই সুস্থ হয়েছেন। আরও দু’জন আজ চলে যাচ্ছেন। অর্থাৎ এখন দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ২০ জন।

এসএমএম