• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২০, ১০ মাঘ ১৪২৬

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

মুজিববর্ষ
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৬, ২০১৯, ০১:০০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ৬, ২০১৯, ০১:০১ পিএম

ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ ধেয়ে আসছে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ

জাগরণ ডেস্ক
ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ ধেয়ে আসছে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ

ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ দেশের বুকে কাঁপন তুলবে তীব্র শৈত্য প্রবাহ। এমনটাই দাবি করছে আবহাওয়া অধিদফতর। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে, যার বর্ধিতাংশ উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।

আবহাওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ডিসেম্বরের শেষ ভাগে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে একটি বা দুটি মৃদু (৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা) কিংবা মাঝারি (৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা) শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।

তীব্র শীতের এই পূর্বাভাস এরইমধ্যে বার্তা পাঠিয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে। ইতিহাসের সর্বোচ্চ সংখ্যক ঘূর্ণিপ্রলয়ে টালমাটাল ভারত ও বাংলাদেশের উপর এবার প্রকৃতি যে তীব্র শীতের প্রকোপ সৃষ্টি করতে যাচ্ছে তা বেশ ভালভাবেই টের পাইয়ে দিচ্ছে হাড় কাঁপানো তীব্র হিমেল হাওয়া। মাসের শুরু থেকে রাজধানীসহ দেশের বেশির ভাগ এলাকাজুড়ে রাতে হালকা শীত পড়ছে। তবে দিনে রোদ-গরম আর রাতে হালকা শীতের কারণে ঠান্ডা জ্বরে  ভুগছেন অনেকেই।

আবহাওয়াবিদেরা বলছেন, শিগগির এ অবস্থা থেকে অন্তত রাজধানীবাসীর মুক্তি নেই। মাসের শেষ সপ্তাহের দিকে তাপমাত্রা কমে দেখা দিতে পারে শৈত্যপ্রবাহ।

গতকাল বৃহস্পতিবার পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাকি এলাকাগুলোর দিনের তাপমাত্রা এখনো ২৫ থেকে ৩১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ওঠানামা করেছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে চলতি ডিসেম্বর মাসের জন্য দেওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এ মাসের শেষের দিকে দেশের বেশির ভাগ এলাকায় শৈত্যপ্রবাহ শুরু হতে পারে। তখন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে চলে যেতে পারে। এ ছাড়া চলতি মাসে বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপও সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা আছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান জানান, গত নভেম্বর মাসেও দেশের অনেক এলাকায় স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে, তাপমাত্রা বেশি ছিল। তবে মাসের শেষের দিকে দেশের বেশির ভাগ এলাকায় শীত জেঁকে বসতে পারে।

এসকে

আরও পড়ুন