• ঢাকা
  • রবিবার, ২৫ আগস্ট, ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: মে ১৫, ২০১৯, ০৯:১৫ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ১৫, ২০১৯, ০৯:১৫ পিএম

অপহরণের আট মাস পর নরসিংদীর বালক রাঙামাটি থেকে উদ্ধার

নরসিংদী সংবাদদাতা
অপহরণের আট মাস পর নরসিংদীর বালক রাঙামাটি থেকে উদ্ধার
আট মাস পর মায়ের কাছে ফিরে এল অপহৃত সাব্বির  ছবি : জাগরণ

নরসিংদীর রায়পুরা থেকে ফুসলিয়ে নিয়ে গিয়ে রাঙামাটির বরকলে জোরপূর্বক মাছ ধরার কাজে (শ্রম শোষণ) নিয়োজিত করার ৮ মাস পর সাব্বির নামের এক বালককে উদ্ধার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে রাঙামাটি থেকে খোকন আলী (২৭) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

খোকন আলী রাঙামাটির বরকলের কুরকটিছড়ি গ্রামের মৃত আক্কাছ আলীর ছেলে। গ্রেপ্তারকৃত খোকন পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে টাকার বিনিময়ে ওই বালককে কিনে নেওয়ার কথা স্বীকার করেছে।
 
বুধবার (১৫ মে) দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে নরসিংদীর পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহমেদ এ তথ্য জানান।

পুলিশ সুপার জানান, ৮ মাস আগে নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার নলবাটা গ্রামের মৃত আলমগীর হোসেনের ছেলে, স্থানীয় একটি মাদ্রাসা ও এতিমখানার ছাত্র ফজর রহমান সাব্বিরকে (১৩) প্রলোভন দেখিয়ে চট্টগ্রাম নিয়ে যায় পাচারকারী দলের এক অজ্ঞাত সদস্য। ট্রেনযোগে চট্রগ্রামে নেওয়ার পর সেখানে সাব্বিরকে নাজিম নামে একজনের নিকট হস্তান্তর করা হয়। পরদিন নাজিম মাদ্রাসাছাত্র সাব্বিরকে খোকন আলী নামের একজনের নিকট বিক্রি করে দেয়।

পরে আসামি খোকন আলী বরকলের কুসুমতলী এলাকায় সাব্বিরকে জোরপূর্বক মাছ ধরার কাজে নিয়োজিত করে। একাধিকবার সাব্বির সেখান থেকে কৌশলে পালানোর চেষ্টা করলে খোকন আলী তাকে মারধর করে এবং প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আটক করে রাখে এবং অন্যদের সাথে মাছ ধরার শ্রম শোষণের কাজে নিয়োজিত রাখে।

নিখোঁজের এক মাস অতিবাহিত হওয়ার পর সাব্বির কৌশলে খোকন আলীর মোবাইল ফোন দিয়ে তার মা বিলকিস বেগমকে ফোন করে ঘটনার বিবরণ দেয়। পরে ওই নাম্বারে ফোন দিয়ে ছেলের খোঁজ জানতে চাইলে মা বিলকিস বেগমকে জানানো হয় সাব্বিরকে সে টাকার বিনিময়ে কিনে নিয়েছে এবং তাকে ফেরত দেওয়া যাবে না।

ছেলেকে ফেরত পাওয়ার বিভিন্ন চেষ্টা চালিয়েও তাকে না পেয়ে মা বিলকিস বেগম নরসিংদীর পুলিশ সুপারের নিকট লিখিত আবেদন করেন। আবেদন জানানোর পর পুলিশ সুপারের নির্দেশে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক জাকারিয়া সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে রাঙামাটি থেকে অপহৃত সাব্বিরকে উদ্ধার ও আসামি খোকন আলীকে গ্রেপ্তার করে।

আসামী খোকন মাছ ধরার মৌসুমে দালাল চক্রের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে অল্প বয়সী ছেলেদের নিয়ে বিভিন্ন নৌকায় মাছ ধরার কাজে নিয়োজিত করার কথা স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ

এনআই

Islami Bank