• ঢাকা
  • রবিবার, ২৯ মার্চ, ২০২০, ১৫ চৈত্র ১৪২৬
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০, ০২:৫২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০, ০২:৫২ পিএম

গাইবান্ধায় বন্ধ করে দেয়া হলো ১৯টি অবৈধ ইটভাটা

গাইবান্ধা সংবাদদাতা
গাইবান্ধায় বন্ধ করে দেয়া হলো ১৯টি অবৈধ ইটভাটা
অবৈধ এই ইটভাটাটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে ● জাগরণ

গাইবান্ধায় ১৬৭টি ইটভাটার মধ্যে ১৫০টিই অবৈধ। এর মধ্যে গত দেড়মাসে ১৯টি ইটভাটা বন্ধ করে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত পলাশবাড়ী উপজেলার চারটি ইটভাটায় অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মেজবাউল হোসেন।

অভিযানে উপজেলার বেতকাপা ইউনিয়নের সাকোয়া ব্রিজ সংলগ্ন নজেল হোসেনের এমএম ব্রিকস ও এমসিবি ব্রিকসকে দেড় লাখ করে তিন লাখ টাকা এবং একই ইউনিয়নের আমলাগাছী গ্রামের ছাদেক হোসেনের হাজি ব্রিকস ও এসওবি ব্রিকসকে দুই লাখ করে চার লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

এ সময় ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় এই চারটি ইটভাটার আগুন নিভিয়ে বন্ধ ঘোষণা করে ভ্রাম্যমান আদালত।

গত ১৪ জানুয়ারি পলাশবাড়ী উপজেলায় দুইটি, ২৬ জানুয়ারি সাদুল্লাপুর উপজেলায় ৫টি, ৫ ফেব্রুয়ারি পলাশবাড়ী উপজেলায় ৫টি এবং ১০ ফেব্রুয়ারি সদর উপজেলায় ৩টি ইটভাটার আগুন নিভিয়ে বন্ধ করে দেয় জেলা প্রশাসন।

গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক আবদুল মতিন দৈনিক জাগরণকে বলেন, পরিবেশ অধিদফতরের ছাড়পত্র ও লাইসেন্স ব্যতীত ইট পোড়ানোর কারণে ওই ৪টি ইটভাটার মালিককে সাত লাখ টাকা জরিমানা ও ফায়ার সার্ভিসের সহায়তায় ইটভাটার আগুন নিভিয়ে দেয়া হয়েছে। এর আগেও ১৫টি  ইটভাটার আগুন নিভিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, এটি আমাদের চলমান অভিযান। পর্যায়ক্রমে জেলার প্রত্যেকটি অবৈধ ইটভাটায় অভিযান চালানো হবে। 

এসএমএম