• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল, ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬
প্রকাশিত: মার্চ ১৭, ২০২০, ০৮:৫৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ১৭, ২০২০, ০৮:৫৫ পিএম

সুনামগঞ্জে জনতা ব্যাংকের উদ্যোগে ‍‍‘মুক্তির মহানায়ক‍‍’ উদযাপন

সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা
সুনামগঞ্জে জনতা ব্যাংকের উদ্যোগে ‍‍‘মুক্তির মহানায়ক‍‍’  উদযাপন
সুনামগঞ্জে জনতা ব্যাংকের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু জন্মশতবার্ষিকীর বিশেষ অনুষ্ঠান ‍‍`মুক্তির মহানায়ক‍‍` উদযাপন- দৈনিক জাগরণ

সুনামগঞ্জে জনতা ব্যাংকের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু জন্মশতবার্ষিকীর বিশেষ অনুষ্ঠান 'মুক্তির মহানায়ক' উদযাপিত হয়েছে। দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করে জনতা ব্যাংক সুনামগঞ্জ আঞ্চলিক অফিস।

সুনামগঞ্জ জেলা প্রাশাসক আব্দুল আহাদ ও জনতা ব্যাংকের সুনামগঞ্জ আঞ্চলিক ইনচার্জ শাহাদত হোসেন সরকার এসময় উপস্থিত ছিলেন। সুনামগঞ্জে জনতা ব্যাংকের সকল শাখা ব্যবস্থাপক এবং কর্মকর্তাদের নিয়ে অনুষ্ঠানের শুরুতেই বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন আঞ্চলিক ইনচার্জ শাহাদত হোসেন সরকার।  পরে জেলা প্রশাসকের উপস্থিতিতে কেক কাটা হয়।

এসময় জেলা প্রাশাসক আব্দুল আহাদ বলেন, ১৯২০ সালের এই দিনে টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন মুক্তির মহানায়ক শেখ মুজিবুর রহমান। যিনি ধীরে ধীরে হয়ে উঠেছিলেন বাঙালির  ‘বঙ্গবন্ধু’। তার হাত ধরেই আসে বাঙালির স্বাধীনতা, জন্ম নেয় বাংলাদেশ। কিন্তু অত্যান্ত দু:খ এবং লজ্জার বিষয় আমাদের স্বাধীনতার স্থপতিকেই আমরা বাচতে দিলামনা। মাত্র ৫৫ বছর বয়সে কিছু বিপথগামী সেনা কেড়ে নিলো মহান নেতার প্রাণ। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু আজ বেচে থাকলে বিশ্বের বুকে আজ বাংলাদেশ আরো সমৃদ্ধ হয়ে উঠতো।

জনতা ব্যাংক আঞ্চলিক ইনচার্জ শাহাদত হোসেন সরকার বলেন, বঙ্গবন্ধু সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি। এই মহামানব ছিলেন নির্যাতিত-নিপীড়িত বাঙালির ত্রাতা ও মুক্তির দিশারী। গভীর রাজনৈতিক প্রজ্ঞা, আত্মত্যাগ এবং জনগণের প্রতি মমত্ববোধের কারণে পরিণত বয়সেই তিনি হয়ে ওঠেন বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা। এক রাজনৈতিক সংগ্রামবহুল জীবনের অধিকারী এই নেতা বিশ্ব ইতিহাসে ঠাঁই করে নেন স্বাধীন বাংলাদেশের রূপকার হিসাবে। শাহাদত বলেন, বাঙালি জাতির ইতিহাসে বঙ্গবন্ধুর অবদান চিরদিন স্বর্ণাক্ষরে লিপিবদ্ধ থাকবে।

এসকে