• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন, ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
প্রকাশিত: এপ্রিল ১, ২০২০, ০৮:২৭ এএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১, ২০২০, ০৪:৪২ পিএম

অপহরণের পর কিশোরীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা, অতঃপর গণধোলাই

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা
অপহরণের পর কিশোরীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা, অতঃপর গণধোলাই
অভিযুক্ত বিল্লাল ● জাগরণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর থানার টিয়ারা গ্রামে ১৪ বছরের এক কিশোরীকে তুলে নিয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে ৩ সন্তানের জনক বিল্লাল (৩৮) নামের এক লম্পট।

অভিযুক্ত ওই এলাকার প্রভাবশালী সাবেক বিএনপি নেতা ফিরোজ মেম্বারের ছেলে।

ঘটনাটি গত শনিবার (২৮ মার্চ) ঘটলেও এলাকার মাতব্বরদের বিচারের আশায় সোমবার (৩১ মার্চ) অবধি থানায় কোনও অভিযোগ দায়ের করতে পারেনি ভোক্তভোগীর পরিবার।

স্থানীয়দের অভিযোগ, এর আগেও অভিযুক্ত বিল্লাল এমন গর্হিত অনেক কাজ করেছে। কিন্তু তার বাবা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় টাকা দিয়ে গ্রামের মাতবরদের ম্যানেজ করে নিয়েছেন। এবারের ঘটনা পাশ্ববর্তী চন্দ্রপুর গ্রামে হওয়ায় ঘটনাস্থলে সে গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছে।

ভুক্তভোগীর মা শাহিনুর (ছদ্মনাম) জানান, মেয়েটা ঢাকায় থাকত। সপ্তাহ খানেক আগে বাড়ি এসেছে। তাকে আমি পাশের গ্রামে আমার ছেলের শ্বশুর বাড়িতে পাঠিয়েছিলাম। বিলের মাঝখানে সড়কে একা পেয়ে বিল্লাল তাকে মুখ চেপে জাপটে ধরে সিএনজিতে করে তুলে নিয়ে যায়। এরপর রাস্তায় গাডিটি নষ্ট হয়ে গেলে স্থানীয় লোকজন টের পেয়ে ওই ছেলের কাছ থেকে আমার মেয়েকে উদ্বার করে।

এ বিষয়ে বিটঘর ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এ ব্যাপারে নবীনগর থানার ওসি রনজিৎ রায় বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে আমি অবগত নই। তবে অনুসন্ধান করে আমরা তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

এইউ/এসকে