• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ মে, ২০২১, ৩১ বৈশাখ ১৪২৮
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৬, ২০২১, ০৯:৫৭ এএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৬, ২০২১, ১১:১৮ এএম

মসজিদের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১

মসজিদের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১

রংপুরের মসজিদের জন্য আদায়কৃত টাকা ভাগাভাগি নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নাজমুল হক নজু (৪৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। 

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে কাউনিয়া উপজেলার হারাগাছে পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সারাই হরিনটারী জুম্মাপাড় জামে মসজিদের কাছে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত নাজমুল হক সারাই জুম্মাপাড় এলাকার আবুল হকের ছেলে। তিনি স্থানীয় একটি বিড়ির কারখানায় চাকরি করতেন।

এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে চেয়ারম্যানটারি জুম্মাপাড় জামে মসজিদের উন্নয়নের চাঁদা আদায় করছিল মসজিদ কমিটি। এর মধ্যে চাঁদার শতকরা ২০ শতাংশ টাকা আদায়কারীরা নিতেন। এই টাকা নেওয়াকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার জোহরের নামাজের পর নতুন কমিটির সদস্য আব্দুল বারী ভেল্লুর (৫২) সঙ্গে পুরাতন কমিটির সদস্য নুর আলমের ভাই দয়াল মিয়ার (৩৮) বাগবিতণ্ডা হয়। 

পরে মাগরিবের নামাজ শেষে আবারও দুই পক্ষের মাঝে কথা-কাটাকাটি হয়। এর জেরে মসজিদ থেকে বাড়িতে ফেরার পথে ভেল্লুর দুই ছেলে রিপন ও জীবনসহ কয়েকজন মিলে দয়াল ও তার পক্ষের লোকজনের ওপর হামলা চালায়। এ ঘটনাটি জানাজানি হলে উভয় পরিবারের লোকজন দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোঁটা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে নাজমুল হক (৪৫), দয়াল মিয়া (৩৮) ও নুর আলম আহত হন। 

গুরুতর আহত অবস্থায় নাজমুল হককে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার মৃত্যু হয়। 

এ ঘটনায় পুলিশ ভেল্লু মিয়া (৫২), তার স্ত্রী স্বপ্না (৪২) ও দুই ছেলে রিপন মিয়া (১৮) এবং জীবন মিয়াকে (১৬) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়ে গেছে।

রংপুর মহানগর পুলিশের হারাগাছ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম জানান, ঘটনার পর থেকে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছিল। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।