• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন, ২০২১, ১০ আষাঢ় ১৪২৮
প্রকাশিত: মে ১৪, ২০২১, ০৫:৫৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ১৪, ২০২১, ০৮:০৬ পিএম

‘প্রথম সারির মিডিয়া বসুন্ধরার দখলে’

‘প্রথম সারির মিডিয়া বসুন্ধরার দখলে’

পবিত্র ঈদুল ফিতর আনন্দের দিন। এক মাস সিয়াম সাধনার পর মুসলমানরা এই ঈদুল ফিতর উদযাপন করে থাকেন। ঘরে ঘরে ঈদ উদযাপন করলেও ভিন্ন চিত্র দেখা যায় কলেজছাত্রী মোসারাত জাহান মুনিয়ার বাসায়। সুনশান নিরবতা আজ তার বাড়িতে। মোবাইল ফোনে কুশল বিনিময় করে ঈদ মোবরক বলে উঠলে ওপাশ থেকে কান্না জড়িত কণ্ঠে মুনিয়ার বড় বোন নুসরাত জাহান বলে উঠলেন, “ভাই আমাদের কি ঈদ আছে, আমাদের ঈদ মাটি হয়ে গেছে। প্রতি ঈদে আমরা একসঙ্গে উদযাপন করতাম।”

শুক্রবার (১৪ মে) সংবাদকর্মী পরিচয় দিয়ে কথা বলতে গেলে মুনিয়ার বড় বোন আরও বলেন, “ভাই আমার আদরের ছোট বোনটি মারা যাওয়ার এক মাসও হলো না এর মধ্যে আমরা কি আর ঈদের আনন্দ করতে পারি। আমাদের ঈদ আনন্দ, কেনাকাটা এগুলো কিছুই করা হয়নি। ঈদের নামাজ পড়ে আমার স্বামী ও খালাতো ভাই মুনিয়ার কবর জেয়ারত করে আসছে।”

এসব কথা বলতে বলতে তিনি একাধিকবার কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

নিজেকে সামলানোর চেষ্টা করে কান্না বিজড়িত কণ্ঠে আবার বলে উঠেন, “জানি না আমার বোন মুনিয়া হত্যার সুষ্ঠু বিচার পাব কি না। দেশের প্রথম সারির প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিকস, অনলাইন মিডিয়া বসুন্ধরা গ্রুপের দখলে। দেশের এ সিরিয়াস বিষয়টা নিয়ে এ মিডিয়াগুলো কোনো সংবাদই প্রকাশ করছে না। আমি আজকে ঈদের দিনে আপনাদের মাধ্যমে জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে করজোড়ে মিনতি করছি আমার ছোট বোনের হত্যার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের যেন এ মাটিতে উপযুক্ত বিচার হয়।” 

এদিকে, সম্প্রতি এক মানববন্ধনে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য হাজী আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার বলেছেন, “মুনিয়া হত্যার সুষ্ঠু বিচার না হলে কুমিল্লা থেকে আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে।”

বসুন্ধরা গ্রুপের সঙ্গে আমাদের কোনো শত্রুতা নেই আমরা অপরাধীর বিচার চাই বলে তিনি জানান।