• ঢাকা
  • শনিবার, ২৮ মে, ২০২২, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
প্রকাশিত: জুলাই ২৪, ২০২১, ০৩:১৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ২৪, ২০২১, ০৯:১৬ এএম

শিশু গৃহকর্মী নির্যাতনকারী সেই সারাহ সুদীপা গ্রেপ্তার

শিশু গৃহকর্মী নির্যাতনকারী সেই সারাহ সুদীপা গ্রেপ্তার

বান্দরবানে এক শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে পুলিশ মানবাধিকারকর্মী ও অ্যাডভোকেট সারাহ সুদীপা ইউনুছকে গ্রেপ্তার করেছে। 

শনিবার সকালে তাকে বান্দরবান শহরের বনরুপা পাড়ার নিজ বাসা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ,তবে একই মামলার আসামি তার স্বামী ফয়সাল আহমেদ পলাতক রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গত ২২জুলাই রওশন আরা নামে এক নারী শিশু গৃহকর্মী জয়নাব আক্তার জোহরাকে নির্যাতনের অভিযোগে মানবাধিকার কর্মী অ্যাডভোকেট সারাহ সুদীপা ইউনুছ ও তার স্বামী কোয়ান্টামের অর্গানিয়ার লিগ্যাল এ্যাডভাইজার অ্যাডভোকেট ফয়সাল আহম্মেদকে আসামি করে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও চিকিৎসা করে আদালত নিয়ে গেলে আদালত নির্যাতিত শিশু জয়নাব আক্তার জোহরাকে (৯) চট্টগ্রামের হাটহাজারীর সেফহোমে (নিরাপদ আবাসন) প্রেরণের নির্দেশ দেন। গত শুক্রবার শিশুটিকে সেফহোমে পাঠানো হয়।

বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) মো.সোহাগ রানা বলেন,শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে সারাহ সুদীপা ইউনুস (৪০) ও তার স্বামী ফয়সাল আহম্মেদ (৪৫) এর নামে শিশু আইন ,২০১৩ এর ৭০/৮০(১) এর ধারায় একটি মামলা দায়ের করেছে তার এক প্রতিবেশি রওশানা আরা। এর প্রেক্ষিতে অভিযান পরিচালনা করে মামলার আসামি সারাহ সুদীপা ইউনুছকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বান্দরবানে এক শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসে। নির্যাতিত শিশুটি জানায়, তাকে জ্বলন্ত মশার কয়েল দিয়ে ছ্যাকা দেয়াসহ বিভিন্নভাবে নির্যাতন করে সারাহ সুদীপা ইউনুছ ও তার স্বামী। পরে শিশুটির এক প্রতিবেশি বাদী হয়ে সারাহ সুদীপা ইউনুছ ও তার স্বামী ফয়সাল আহম্মেদ এর নামে বান্দরবান সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

প্রসঙ্গত, প্রয়াত বোমাং রাজা কেএস প্রু এর কন্যা মানবাধিকার নেত্রী ডনাই প্রু নেলীর সহযোগিতা রাতারাতি বান্দরবানের মানবাধিকার নেত্রী বনে যান সারাহ সুদীপা ইউনুস। এরপর একের পর এক অপরাধ করলেও আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাদের। সারাহ সুদীপা ইউনুস ও স্বামী ফয়সাল আহম্মেদের পূর্ব পুরুষ বান্দরবানের বাসিন্দা না হলেও ফয়সাল আহম্মেদ জেলার রাজবিলা ইউনিয়নের একজনকে ভূয়া বাবা সাজিয়ে জাল কাগজ পত্রের মাধ্যমে জেলায় একের পর এক ভূমি কিনে বান্দরবানের নাগরিক বনে যান। তাদের বিরুদ্ধে জেলার বিভিন্ন এলাকায় অন্যজনের একাধিক ভূমি দখলের অভিযোগ আছে। 

জাগরণ/এমআর