• ঢাকা
  • শনিবার, ২৮ মে, ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২১, ২০২২, ০৩:৫০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২১, ২০২২, ০৯:৫০ এএম

যৌন হয়রানির অভিযোগে প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

যৌন হয়রানির অভিযোগে প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার
ছবি- জাগরণ।

মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট)প্রতিনিধি// 
বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার ৯৬নং বটতলা চন্দনতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একাধিক ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগে প্রধান শিক্ষক ননী গোপালকে গ্রেফাতার করেছে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার বিকেলে  বিদ্যালয়ের সামনে থেকেই পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে । যৌন হয়রারি শিকর এক ছাত্রীর পিতা বাদী  হয়ে মোরেলগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের প্রেক্ষিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

দায়েরকৃত মামলা সূত্রে জানা গেছে, বাদীর ১২ বছর বয়সী মেয়ে ওই বিদ্যালয়ে ৪র্থ শ্রেনির ছাত্রী। ঘটনার দিন  ৬ ডিসেম্বর দুপুর ২টার দিকে প্রধান শিক্ষক ননী গোপাল ওই ছাত্রীকে তার অফিস কক্ষে ডেকে নেয়। এরপর প্রধান শিক্ষক ওই ছাত্রীকে তার কোলে বসিয়ে নানাভাবে যৌন হয়রানী করে। এঘটনার পর থেকে ওই ছাত্রী বিদ্যালয়ে যাওয়া বন্ধ করে দেয় এবং জোড় করে বিদ্যালয়ে পাঠালে আত্মহত্যা করবে বলেও তার বাবা-মাকে জানায়। ছাত্রীর বাবা-মা মেয়েকে বিদ্যালয়ে পাঠানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায় ছাত্রীটি তার মায়ের কাছে প্রকাশ করে যে, সে নিজে সহ একাধিক ছাত্রী বিভিন্ন সময় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ননী গোপাল কর্তৃক যৌন হয়রানীর শিকার হয়ে আসছে। আসামি ননী গোপাল হালদার ইতোঃপূর্বে একই এলাকার জিউধরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক থাকাকালেও একই ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে বলে মামলায় বলা হয়।

এ ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় প্রভাবশালী মহল যৌন হয়রানীর ঘটনা ধামাচাপা দিতে তৎপর হয়ে ওঠে। বিভিন্ন মহলে চলতে থাকে দেন দরবার। ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার অপচেষ্ঠায় গত রোববার এক শালিস বৈঠকে ছাত্রী ও ৫ম শ্রেনির এক অভিভাবক অভিযোগ প্রত্যাহার করতে বাধ্য করে ওই প্রভাবশালী মহল। তারপরও শেষ রক্ষা হয়নি। একই বিদ্যালয়ের যৌন হয়রানির শিকার ৪র্থ শ্রেনির অপর এক ছাত্রীর পিতা বুধবার মোরেলগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ তাতে গ্রেফতার করে।
 

থানা অফিসার ইন চার্জ ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, স্কুল ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে প্রধান শিক্ষক ননী গোপাল এর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এ মামলায় তাকে আটক করা হয়েছে ।

 

এসকেএইচ//