• ঢাকা
  • রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬
প্রকাশিত: জুন ১০, ২০১৯, ১২:৫৫ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুন ১০, ২০১৯, ১২:৫৫ পিএম

চিকিৎসক নিয়োগ

বিক্ষোভ, পুলিশ প্রহরায় বিএসএমএমইউতে চলছে মৌখিক পরীক্ষা 

জাগরণ প্রতিবেদক
বিক্ষোভ, পুলিশ প্রহরায়  বিএসএমএমইউতে চলছে মৌখিক পরীক্ষা 


বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) একদিকে চলছে আন্দোলনকারী চিকিৎসকদের বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ, অপরদিকে ভিসির কার্যালয়ে চলছে চিকিৎসক নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা। 

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়াকে সভাপতি ও রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বি এম আবদুল হান্নানকে সদস্য সচিব করে গঠিত ১০ সদস্যের নিয়োগ কমিটি মৌখিক পরীক্ষা নিচ্ছে। সোমবার দুপুর ১টা থেকে আরও ১৫ জনের সাক্ষাৎকার নেয়া হবে। আগামী ৮ জুলাই পর্যন্ত সাক্ষাৎকার চলবে।

সোমবার বিএসএমএমইউর ভিসি অধ্যাপক কনক কান্তি বড়ুয়া বলেন, সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আজ থেকে শুরু হওয়া মৌখিক পরীক্ষায় প্রতিদিন সকালে ৩৫ জনের সাক্ষাৎকার নেয়ার কথা থাকলেও আগামী শনিবার (১৫ জুন) থেকে আরও ১৫ জন পরীক্ষার্থীর মৌখিক পরীক্ষা নেয়া হবে। নির্দিষ্ট সময় অর্থাৎ ৮ জুলাইয়ের আগেই মৌখিক পরীক্ষা শেষ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন উপাচার্য কনক কান্তি বড়ুয়া।

এদিকে গতকাল লিখিত পরীক্ষায় অনুত্তীর্ণদের বিক্ষোভ কর্মসূচির কারণে আজ তাদের বাধাবিপত্তির মুখে মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় কি-না তা নিয়ে শঙ্কা ছিল। তবে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে পরীক্ষার্থীরা সময়মতো পরীক্ষা দিতে উপস্থিত হন।

পরীক্ষা সামনে রেখে রোববার রাত থেকে ভিসি ভবনের সামনে এবং পেছনের প্রবেশ পথে পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়। এ প্রবেশপথে রোগী ও তাদের স্বজনদের প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। ডাক্তার বা অন্য কারও পরিচয় নিশ্চিত হয়ে তল্লাশির পর তবেই তাকে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে। দোতলায় ভিসির কার্যালয়ের সামনে পুলিশি পাহারায় নিরাপত্তাবলয় তৈরি করা হয়েছে।

বিএসএমএমইউএ’র একাধিক কর্মচারী বলেন, আজ সকালে নির্ধারিত সময়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসক নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ নিয়ে উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা এবং আশঙ্কা থাকলেও সকাল থেকে শান্তিপূর্ণভাবে মৌখিক পরীক্ষা চলছে। সকাল পৌনে ৯টা থেকে মৌখিক পরীক্ষা শুরু হয়। সকাল সাড়ে ১০টার মধ্যেই লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ২০ জন নিয়োগ প্রত্যাশী মৌখিক পরীক্ষা দেন। 

উল্লেখ্য, গতকাল রোববার বিকেল পর্যন্ত আন্দোলনকারীরা নিয়োগ পরীক্ষার ফলাফলে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ভিসির পদত্যাগ ও মৌখিক পরীক্ষার ফলাফল বাতিলের দাবিতে তার কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করেন। কিন্তু সন্ধ্যার আগেই পুলিশ তাদের সরিয়ে দেয়। আজ সকাল বেলাও তারা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বটতলায় জড়ো হওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশ ও আনসারবাহিনীর সদস্যরা তাদের বাধা দেয়।

পরীক্ষা চলাকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরের বটতলায় আন্দোলনকারীদের বিক্ষোভ করতে দেখা যায়। নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল ও কর্মসূচি চলাকালে তাদের ওপর পুলিশি হামলার প্রতিবাদে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন নিয়োগবঞ্চিত বিক্ষুব্ধ চিকিৎসকরা।


এইচএম/আরআই
 

Islami Bank