• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২, ২০১৯, ০৪:৫১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ২, ২০১৯, ০৪:৫১ পিএম

চুয়েটে রাষ্ট্রপতির আগমনে অবরোধ শিথিল চবিতে

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
চুয়েটে রাষ্ট্রপতির আগমনে অবরোধ শিথিল চবিতে

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) চতুর্থ সমাবর্তন ৫ ডিসেম্বর। এতে আসছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তাই সকল প্রকার বিশৃঙ্খলা এড়াতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ডাকা অবরোধ তিনদিনের জন্য শিথিল করেছে ছাত্রলীগ।

সোমবার (২ ডিসেম্বর) সকালে মৌখিকভাবে অবরোধ শিথিলের এই ঘোষণা দেন চবি ছাত্রলীগের সভাপতি ও তাপস স্মৃতি সংসদের প্রধান উপদেষ্টা রেজাউল হক রুবেল।

তিনি বলেন, মহামান্য রাষ্ট্রপতির চট্টগ্রামে আগমন উপলক্ষ্যে আমরা আগামী তিনদিনের জন্য অবরোধ শিথিল করেছি। তবে আমাদের মৌন আন্দোলন চলবে। আর এই তিনদিনের মধ্যে দাবি মেনে না নিলে অবরোধ চলমান থাকবে।

শিক্ষার্থীরা জানান, গত বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের আব্দুর রব হলে শাখা ছাত্রলীগের সিএফসি ও ভিএক্স গ্রুপের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। সেই থেকে দফায় দফায় সংঘর্ষ, অবস্থান ও থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে।

সর্বশেষ রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই নং গেইট সংলগ্ন এগারো মাইল এলাকায় তাপস স্মৃতি সংসদের উপদেষ্টা ও শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি সুমন নাসির ও ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল্লাহ আল নাহিয়ান রাফিকে কুপিয়ে জখম করে ভিএক্স গ্রুপের কর্মীরা।
এই ঘটনার পর ভিএক্স গ্রুপের নেতা মিজানুর রহমান বিপুল ও প্রদীপ চক্রবর্তী দুর্জয়কে অবিলম্বে গ্রেফতার, স্থায়ী বহিষ্কার এবং ছাত্র উপদেষ্টা সিরাজুদ্দৌলার পদত্যাগের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে অনির্দিষ্টকালের অবরোধের ডাক দেয় তাপস স্মৃতি সংসদের নেতাকর্মীরা। 
সেই থেকে অবরোধ চলছে। অবরোধের কারণে অনেক বিভাগ ও ইন্সটিটিউটের পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। হলের  সামনে কোনো ধরনের গাড়ি চলাচল করতে দেয়নি সিএফসি গ্রুপের নেতাকর্মীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের শাটল ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক থাকলেও শিক্ষকদের বাস চলাচল করেনি।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক মনিরুল হাসান এ প্রসঙ্গে বলেন, আলোচনার পর মৌখিকভাবে অবরোধ স্থগিত করেছে ছাত্রলীগ। তবে লিখিত কোন বিবৃতি জানায়নি। এখন বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ সমাবর্তনে সভাপতিত্ব করবেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মহামান্য রাষ্ট্রপতি এবং চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত চ্যান্সেলর জনাব মো. আবদুল হামিদ। 

এছাড়া ৬ ডিসেম্বর চুয়েটের গৌরবময় পথচলার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষেও পালন করা হবে সুবর্ণজয়ন্তী উৎসব। ফলে সমাবর্তন ও সুবর্ণজয়ন্তী ঘিরে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) এখন চলছে বর্ণাঢ্য আয়োজনের প্রস্তুতি। অনুষ্ঠান নির্বিঘ্ন করতে অবরোধ তিনদিনের জন্য শিথিল করার ঘোষণা দেন চবির অবরোধকারীরা। 

কেএসটি

আরও পড়ুন