• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: এপ্রিল ২, ২০১৯, ০৮:১৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২, ২০১৯, ০৮:১৩ পিএম

পরীক্ষার্থী না হয়েও দেড়শ’ জনের নামে প্রবেশপত্র ইস্যু

রাজশাহী সংবাদদাতা
পরীক্ষার্থী না হয়েও দেড়শ’ জনের নামে প্রবেশপত্র ইস্যু

পরীক্ষার্থী নয় এমন ১৫২ জনের নামে এইচএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র ইস্যু করেছে রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড। এর মধ্যে বগুড়ার সরকারি শাহ সুলতান কলেজের ৮১ এবং সরকারি আজিজুল হক কলেজের ৭১ নামে প্রবেশপত্র ইস্যু হয়। পরীক্ষার্থী না থাকায় বোর্ডে এসব প্রবেশপত্র ফিরে এলে জানাজানি হয় বিষয়টি। তবে বোর্ড কর্তৃপক্ষের দাবি, তাদের ভুলেই এমনটি হয়েছে। এর কারণ বের করার চেষ্টা চলছে।

শিক্ষাবোর্ড সূত্রে জানা যায়, এবার সরকারি শাহ সুলতান কলেজ থেকে এক হাজার ৭০৪ শিক্ষার্থী এইচএসসির ফরম পূরণ করে। কিন্তু কলেজে প্রবেশপত্র পাঠানো হয় এক হাজার ৭৮৫ জনের। অপরদিকে এক হাজার ৫৩৭ শিক্ষার্থীর ফরম পূরণ করার পর এক হাজার ৬০৮ জনের প্রবেশপত্র যায় সরকারি আজিজুল হক কলেজে।

উক্ত দুই কলেজ কর্তৃপক্ষ জানায়, যাদের নামে প্রবেশপত্র ইস্যু করা হয়েছে তারা কেউই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী নয়। অনেকের ছাত্রত্ব নেই। আবার কেউ কেউ কলেজ পরিবর্তন করে অন্যত্র চলে গেছে।

সরকারি শাহ সুলতান কলেজে প্রবেশপত্র গেছে রাকিবুল হাসানের নামে। এই শিক্ষার্থীর ভাষ্য, তিনি আগে থেকে নিশ্চিত ছিলেন, পারিবারিক সমস্যায় এবার তার পরীক্ষায় বসা হচ্ছেনা। তাই ফরম পূরণ করেননি তিনি।

এই কলেজ থেকে পরির্তন করে অন্যত্র চলে গেছেন মেহেদী হাসান। তারও ওই কলেজ থেকে পরীক্ষায় অংশ নেয়ার কথা না। তারপরও এই দুজনের নামে এই কলেজে প্রবেশপত্র এসেছে।

সরকারি শাহ সুলতান কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক এজাজুল হক জানান, বোর্ড কর্তৃপক্ষের ভুলে এমনটি হয়েছে। তবে যাচাই-বাছাই শেষে গত ৩০ মার্চ অতিরিক্ত প্রবেশপত্র বোর্ডে ফেরত পাঠানো হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সরকারি আজিজুল হক কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক শাজাহান আলীও। এ সময় তিনি অতিরিক্ত প্রবেশপত্র ফেরত দেয়ার কথা জানান।

রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক ড. আনারুল হক প্রামানিক বলেন, ধারণা করা হচ্ছে-সার্ভার জটিলতায় এমনটি হয়েছে। তবে আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।

এসসি/

Islami Bank
ASUS GLOBAL BRAND