• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর, ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৮, ২০১৯, ০৫:২১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৮, ২০১৯, ০৫:২১ পিএম

এইচএসসি পরীক্ষা

শারমিনের শিক্ষা জীবন থেকে হারিয়ে গেল একটি বছর

বাউফল সংবাদদাতা
শারমিনের শিক্ষা জীবন থেকে হারিয়ে গেল একটি বছর

বিআরডিবির প্রকল্প অফিসারের অমানবিকতার শিকার হয়ে শারমিন আক্তার নামে এক ছাত্রী ভূগোল বিষয়ের পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেননি। ফলে ওই ছাত্রীর শিক্ষা জীবন থেকে একটি বছর হারিয়ে গেছে। তার রোল নম্বর ২২৩৩৮২। তিনি চলতি বছর এইচএসসি পরীক্ষায় বাউফলের বগা ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভেন্যু থেকে পরীক্ষা দিচ্ছেন।

শারমিন আক্তার অভিযোগ করে বলেন, বুধবার (১৭ এপ্রিল) ভূগোল পরীক্ষা ছিল। এ জন্য তিনি যথা সময়ে বাড়ি থেকে পরীক্ষার ভেন্যুতে রওনা দিয়ে আসার পথে তিনি দুর্ঘটনার শিকার হন। ফলে পরীক্ষার ভেন্যুতে পৌঁছাতে তার ১০ মিনিট দেরি হয়। তখন ২৫ মার্কের এমসিকিউ পরীক্ষা চলছিল। ওই পরীক্ষার জন্য নির্ধারিত সময় ছিল ২৫ মিনিট। কিন্তু ওই ভেন্যুতে ইউএনও’র প্রতিনিধি হিসাবে দায়িত্বে থাকা বাউফল উপজেলা পল্লী উন্নয়ন বোর্ডের (বিআরডিবি) প্রকল্প অফিসার তুরাল প্রামাণিক তাকে পরীক্ষায় অংশ নিতে বাধা দেন। এ সময় তিনি কান্না জড়িত কণ্ঠে অনেক কাকুতি মিনতি করলেও কোনো লাভ হয়নি। বরং অমানবিক আচরন করে তাকে পরীক্ষার ভেন্যু থেকে বের করে দেন। ওই সময় দায়িত্বে থাকা কয়েকজন শিক্ষক তাকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়ার জন্য ইউএনওর প্রতিনিধিকে অনুরোধ করলেও তিনি কর্ণপাত করেননি। ফলে ওই ছাত্রী মানুষিক ভাবে ভেঙে পড়েছেন। তার শিক্ষা জীবন থেকে হারিয়ে গেছে একটি বছর।

শারমিন আক্তারের বড় ভাই জাকির হোসেন জানান, ইতিমধ্যে শারমিন ৬ বিষয়ের পরীক্ষা দিয়েছে। বাকি ছিল ৪টি পরীক্ষা। কিন্তু তার আগেই আমার বোনের জীবনটা তছনছ হয়ে গেল।

উক্ত ভেন্যুর দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিনিধি তুরাল প্রামাণিক জানান, ওই ছাত্রী ভেন্যুতে দেরি করে আসায় তাকে পরীক্ষায় অংশ নিতে দেয়া হয়নি। এ জন্য আমি মোটেই অনুতপ্ত নই।

এ প্রসঙ্গে বাউফলের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিজুস চন্দ্র দে বলেন, খবরটি সঠিক নয়। ওই ছাত্রী ১০:৪৬ মিনিটের সময় পরীক্ষা কেন্দ্রে আসে। ততক্ষণে অনুপস্থিত পরীক্ষার্থীদের তালিকা শিক্ষা বোর্ডে পাঠানোসহ নৈর্ব্যত্তিক পরীক্ষার ওএমআর সীটগুলো মূল কেন্দ্রে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

এসসি/