• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: অক্টোবর ১৮, ২০১৯, ১২:১৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ১৮, ২০১৯, ১২:২৮ পিএম

সশস্ত্র হামলার মুখে আসামির মুক্তি

‘বামন’ মাফিয়া ডনের কাছে মেক্সিকো সরকারের পরাজয়!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
‘বামন’ মাফিয়া ডনের কাছে মেক্সিকো সরকারের পরাজয়!
কুলিয়াক্যান ফেডারেল জেল ভবনের বাইরে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের পাহাড়া- ছবি: রয়টার্স

 

মেক্সিকোর উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় কুলিয়াক্যান শহরে পুলিশের উপর সশস্ত্র হামলা চালিয়ে গ্রেফতারকৃত আসামি, 'এল চ্যাপো' (বামন) খ্যাত শক্তিশালী ড্রাগ মাফিয়া ডন জোক্যুইন গুজম্যানের ছেলে ওভিডিও গুজম্যানকে মুক্তিদানে সরকারকে বাধ্য করে তার সন্ত্রাসীদল। প্রকাশিত এক খবরে এমন তথ্যই জানিয়েছে আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

শুক্রবার (১৮ অক্টোবর) রয়টার্স প্রকাশিত এই খবরে বলা হয়, মাত্র কয়েকদিন আগেই মেক্সিকোর ফেডারেল পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন বর্তমানে দেশটির এক নম্বর ড্রাগ মাফিয়া ডন জোক্যুইনের ছেলে ওভিডিও গুজম্যান। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) ভারি অস্ত্রশস্ত্রসহ নগরীর কুলিয়াক্যানের ফেডারেল জেল ঘেরাও করে জোক্যুইনের নেতৃত্বাধীন 'সিনালাও গ্যাং' সন্ত্রাসীরা। এ সময় তাদের সঙ্গে পুলিশের কয়েক দফা গুলি বিনিময় হয়। কিন্তু এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীদের ভারি গুলিবর্ষনের মুখে কোনঠাসা হয়ে পড়ে পুলিশ। পরে জিম্মি পুলিশ কর্মকর্তাদের অস্ত্রের মুখে রেখে সরকারকে বাধ্য করা হয় ফেডারেল জেলে ডিটেনশনে থাকা ওভিডিওকে মুক্তি প্রদানে। 

এক সময় গোয়েন্দা সংস্থার হাতে গ্রেফতার  'এল চ্যাপো' (বামন) খ্যাত  ড্রাগ মাফিয়া ডন জোক্যুইন গুজম্যান

প্রকাশিত সংবাদের তথ্য মতে, এসময় রাস্তায় থাকা কয়েকটি বাসে আগুন ধরিয়ে শহরের প্রতিটি প্রবেশ পথ বন্ধ করে দেয় সন্ত্রাসীরা। ফলে বাহির থেকে কোনো প্রকার সাহায্য পাঠাতে ব্যর্থ হয় প্রশসান।

মেক্সিকোর নিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রী আলফোন্সো দুরাজোর বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থাটি জানায়, জিম্মি পুলিশ কর্মকর্তা এবং নগরীর সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে ওভিডিওকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয় সরকার।

বাসে আগুন ধরিয়ে কুলিয়াক্যান শহরের প্রতিটি প্রবেশ পথ বন্ধ করে দেয় সন্ত্রাসীরা- ছবি: রয়টার্স

মেক্সিকো থেকে যুক্তরাষ্ট্রে মারিজুয়ানা ও কোকেইনের মত মাদক পাচারের অভিযোগে ২৮ বছর বয়সী ওভিডিও গুজম্যানকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছে মেক্সিকান ফেডারেল পুলিশ। এর আগেও দু'বার গ্রেফতার হওয়ার পর পুলিশের চোখে ধুলে দিয়ে পালিয়ে যায় এই চতুর জেলঘুঘু।

মেক্সিকোতে সাম্প্রতিক সময়ে হত্যাসহ অন্যান্য অপরাধ চরম হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। মাত্র দু'দিন আগেই এক সন্ত্রাসী হামলায় নির্মমভাবে হত্যা করা হয় ১৪ পুলিশ কর্মকর্তাকে। দেশটির চলমান পরিস্থিতি নিয়ে এরইমধ্যে ঘোর শঙ্কার কথা প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসন।

এসকে