• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১০ এপ্রিল, ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২০, ০৫:৫২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২০, ০৫:৫২ পিএম

প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী পাচ্ছে মালয়েশিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী পাচ্ছে মালয়েশিয়া
মালয়েশিয়ার সম্ভাব্য প্রধানমন্ত্রী ও বর্তমান উপপ্রধানমন্ত্রী দাতুক সেরি ডা. ওয়ান আজিজাহ ওয়ান ইসমাইল- ছবি: সংগৃহিত

আচমকা পদত্যাগ করেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ও বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ মাহাথির মোহাম্মদ। তার এই সিদ্ধান্তের পরপরই প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন দেশটির বর্তমান উপপ্রধানমন্ত্রী দাতুক সেরি ডা. ওয়ান আজিজাহ ওয়ান ইসমাইল। তিনি মাহাথিরের ঘনিষ্ঠ ও দেশটির ক্ষমতাসীন জোটের সঙ্গী আনোয়ার ইব্রাহীমের স্ত্রী। 

নতুন সরকার গঠন নিয়ে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক ও ক্ষমতাসীন জোটে ভাঙনের গুঞ্জন শুরু হওয়ায় সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) মাহাথির মোহাম্মদের পদত্যাগের ঘোষণাটি আসে। এর পরপরই দেশটির ইংরেজি দৈনিক মালয় মেইল প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ওয়ান আজিজাহের নাম প্রকাশ করে। 

একাধিক সূত্রের বরাতে প্রতিবেদনে জানানো হয়, ক্ষমতাসীন প্রিবুমি বারসাতু মালয়েশিয়া (পিপিবিএম) নেতৃত্বাধীন পাকাতান হারাপান জোট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর মাহাথির মোহাম্মদ পদত্যাগ করেন। এর পরপরই দেশের অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ওয়ান আজিজাহ মনোনীত হন।

বিশ্বের সবচেয়ে প্রবীণতম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পরিচিত মাহাথির ২০১৮ সালে দ্বিতীয় মেয়াদে মালয়েশিয়ার ক্ষমতায় বসেন। দুই লাইনের এক বিবৃতিতে ৯৪ বছর বয়সী এই মাহাথির বলেছেন, সোমবার স্থানীয় সময় দুপুর ১টায় নিজের পদত্যাগের বিষয়টি তিনি মালয়েশিয়ার রাজাকে জানিয়েছেন।

বিশ্লেষকদের মতে, ২০১৮ সালের নির্বাচনে জয় লাভের পর পাকাতান হারাপান জোটের প্রধান হিসেবে সে বছরের ১০ মে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন মাহাথির মোহাম্মদ। বারিসান ন্যাশনাল দলের প্রধান হিসেবে দীর্ঘ ২২ বছর দেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন শেষে ২০০৩ সালে ক্ষমতা থেকে সরে যান তিনি।

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন যাবত ক্ষমতাসীন পাকাতান হারাপান জোটের নেতারা দফায় দফায় বৈঠক করায় জোট ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। তাই বিরোধী দল ‘উমনো অ্যান্ড পার্টি ইসলাম সে-মালয়েশিয়া’-এর (পিএএস) নেতৃত্বে শিগগিরই দেশটিতে নতুন সরকার আসতে পারে বলেও ধারণা করছেন অনেকে।

মূলত এসব কারণেই মাহাথির মোহাম্মদ পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে দাবি দেশটির রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের।

এসকে