• ঢাকা
  • বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৯, ২০২১, ১০:০৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ১৯, ২০২১, ১০:০৩ পিএম

অভিবাসী নিতে যুক্তরাষ্ট্রকে চাপ মেক্সিকোর 

অভিবাসী নিতে যুক্তরাষ্ট্রকে চাপ মেক্সিকোর 

অভিবাসী ঠেকাতে সীমান্তে দেয়াল তুলে মেক্সিকোকে চাপে রেখেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাই ট্রাম্প ক্ষমতা ছাড়ার পূর্বক্ষণেই মেক্সিকো সীমান্ত হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ঢোকার আশায় গুয়াতেমালায় দিন গুনছে হন্ডুরাসের প্রায় সাত হাজার অভিবাসী। ফলে বিপাকে পড়েছে মেক্সিকো সরকার। এর প্রেক্ষিতে ওয়াশিংটনকে অভিবাসী নীতি পুনর্বিবেচনার অনুরোধ মেক্সিকোর। 

গত নভেম্বরেই দুটি শক্তিশালী জলোচ্ছ্বাসের মোকাবেলা করে হন্ডুরাস, গুয়াতেমালা, কোস্টারিকাসহ বিভিন্ন মধ্য আমেরিকান দেশ। এর মধ্যে আর্থিক অনিশ্চয়তা, সহিংসতা ও নির্যাতনের ভয়ে অভিবাসীরা যোগ দিয়েছে “ক্যারাভান” নামক অনিশ্চয়তার দলে। ইতোমধ্যে প্রায় চার হাজার অভিবাসন প্রত্যাশীর ক্যারাভানকে ছত্রভঙ্গ করেছে গুয়াতেমালা পুলিশ। তাই শপথ গ্রহণের আগেই প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে অভিবাসন নীতি পরিবর্তনের অনুরোধ করেছেন মেক্সিকান প্রেসিডেন্ট আন্দেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওবরাডর।

লোপেজ ওবরাডর বলেন, “জো বাইডেন নির্বাচনী প্রচারণার সময় অভিবাসন নীতি চূড়ান্ত করার আশ্বাস দিয়েছিলেন। আমি বিশ্বাস করি, প্রতিশ্রুতি পূরণের সময় এসেছে এবং আশা করি, তিনি এটি করে দেখাবেন।”

উন্নত ও নিরাপদ জীবনের জন্য অনেক অভিবাসী মধ্য আমেরিকা থেকে মেক্সিকো হয়ে পাড়ি জমান যুক্তরাষ্ট্রে। এই অভিবাসীদের আটকাতে কঠোর নীতি প্রণয়ন করেছিলেন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এমনকি তাদেরকে গুয়াতেমালা থেকে মেক্সিকোতে প্রবেশ করতে দেয়া হবেনা বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন মেক্সিকো প্রেসিডেন্ট। তবে নতুন প্রেসিডেন্ট বাইডেনের কাছে ওবরাডরের প্রস্তাবের ব্যাপারে আশাবাদী অভিবাসন প্রত্যাশীরা।