• ঢাকা
  • বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৭, ২০২১, ১০:১৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২৭, ২০২১, ১০:১৭ পিএম

নাইট ক্লাবে এমপিরা, ক্ষমাপ্রার্থী প্রধানমন্ত্রী!

নাইট ক্লাবে এমপিরা, ক্ষমাপ্রার্থী প্রধানমন্ত্রী!

জরুরী স্বাস্থ্য সতর্কতার মধ্যে যেখানে সাধারণ জনগণকে বাসায় থাকতে বাধ্য করছে জাপান সরকার সেসময় পার্লামেন্ট সদস্যরা আড্ডা দিচ্ছেন নাইটক্লাবে। স্থানীয় ট্যাবলয়েড পত্রিকা শুকান বানশুনের এমন খবরে বিপাকে পড়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী। 

শুক্রবার দেশটির একাধিক আইনপ্রণেতা গিঞ্জা শহরের একটি নাইট ক্লাবে গভীর রাত পর্যন্ত সময় কাটিয়েছেন - এই তথ্য প্রকাশ পাওয়ায় পর থেকেই দেশজুড়ে বইছে সমালোচনার ঝড়। তাই শেষ পর্যন্ত এমপিদের হয়ে জনগণের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা।

বুধবার আইনপ্রণেতাদের কাণ্ডে লজ্জিত জাপানের প্রধানমন্ত্রী পারলামেন্ট অধিবেশনে বলেন, ‘‘এ ঘটনায় আমি অত্যন্ত দুঃখিত। আইনপ্রণেতাদের এমন আচরণ করা উচিত যাতে করে জনগণরা তাদের ওপর আস্থা রাখতে পারেন।”

করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে রাজধানী টোকিওসহ তিনটি এলাকায় এ মাসেই জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে জাপান। রাত ৮টার মধ্যে সব রেস্তোরাঁসহ নাইট ক্লাবও থাকার কথা। যদিও আইন অমান্যকারীদের জন্য কোনও সাজা বা জরিমানার ব্যবস্থা রাখা হয়নি।

এ ঘটনার পর সরকারি জোটের দল কোমেইতোর নেতা কিয়োহিকো তোইয়ামাও নিজেদের কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ভূমিকা রাখতে না পারায় প্রধানমন্ত্রী সুগার জনপ্রিয়তা কমছে জাপানে। এরইমধ্যে এমপিদের এমন কাণ্ডে  বিতর্কিত ক্ষমতাসীন দল।