• ঢাকা
  • বুধবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১, ০৯:৪৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১, ০৩:৪৩ পিএম

তাইওয়ান ইস্যু

যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়াকে প্রতিহত করার হুঁশিয়ারি দিল চীন

যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়াকে প্রতিহত করার হুঁশিয়ারি দিল চীন
জাগরণ গ্রাফিক্স ডেস্ক

তাইওয়ান  ইস্যুতে বহিঃবিশ্বের হস্তক্ষেপ প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট সি জিন পিং। তাইওয়ানের সঙ্গে মার্কিন-অস্ট্রেলিয়া সম্পর্ক সুদৃঢ় করার এবং ইইউয়ের পক্ষ থেকে বাণিজ্য সম্পর্ক উন্নত করার কথা জানানোর পর এমন ঘোষণা দেয় চীন।

শুক্রবার তাজিকিস্তানে আয়োজিত সাংহাই করপোরেশন অর্গানাইজশন আয়োজিত এক ভার্জুয়াল কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে পিং বলেন, আমাদের আঞ্চলিক রাষ্ট্রের সঙ্গে বহিরাগত শক্তির সম্পর্ক প্রতিষ্ঠায় অত্র অঞ্চলের ভবিষ্যত নিরাপত্তা ও বাণিজ্যিক ব্যবস্থা হুমকির মুখে পড়বে। তাই তাদের নিজেদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে এই প্রক্রিয়াকে প্রতিহত করতে হবে।

গত বুধবার ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে তাইওয়ানের আধিপত্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়ার সামরিক সহায়তা প্রদানের ঘোষণার প্রেক্ষিতে নতুন করে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এদিকে তাইওয়ানকে নিজেদের আঞ্চলিক প্রদেশ হিসেবে দাবি করে চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন যে, তাইওয়ানের সমর্থনে চীনের সঙ্গে কোনো প্রকার দ্বন্দ্বে জড়ানোর কথা নাকচ করে দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। তাছাড়া তাইওয়ানও অন্য কোন রাষ্ট্রকে তাদের সমর্থনে চীনের বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর আহ্বানও জানায়নি। সেক্ষেত্রে বহিঃরাষ্ট্রগুলোর এক্ষেত্রে অকারণ আগ্রহ প্রকাশ ইতিবাচক নয়।

অপরদিকে মার্কিন ও অস্ট্রেলীয় পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের বিবৃতি অনুস্বারে, তাইওয়ানের সার্বভৌমত্ব ও গণতান্ত্রিক অধিকার রক্ষায় দেশটিকে  সামর্থ্য অর্জনের ক্ষেত্রে সহায়ক শক্তি হিসেবে দেশটির সঙ্গে আন্তঃরাষ্ট্রীয় সম্পর্ক দৃঢ় করতে আগ্রহী তাদের সরকার। কারো বিরুদ্ধে সংঘাতপূর্ণ মনোভাব প্রকাশ এধরণের পদক্ষেপ গ্রহণের উদ্দেশ্য নয়।

এ প্রসঙ্গে আরো বলা হয়, তাইওয়ানের সার্বভৌমত্ব রক্ষা এবং উদীয়মান একটি গণতান্ত্রিক শক্তি হিসেবে রাষ্ট্রটির বিকাশে শান্তিপূর্ণভাবে সকল প্রকার সহায়ত প্রদান অব্যাহত রাখতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়া।

এসকে