• ঢাকা
  • সোমবার, ২৩ মে, ২০২২, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২১, ০১:৪৪ এএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২১, ০১:৪৫ এএম

থাইল্যান্ডে পানির নিচে ৭০ হাজার ঘরবাড়ি

থাইল্যান্ডে পানির নিচে ৭০ হাজার ঘরবাড়ি
সংগৃহীত ছবি

থাইল্যান্ডের উত্তর ও মধ্যাঞ্চলীয় প্রদেশগুলোতে ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে। এরই মধ্যে ৭০ হাজার বাড়িঘর পানিতে তলিয়ে গেছে। পাশাপাশি কমপক্ষে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। 

এ পরিস্থিতিতে ব্যাংককে তৎপরতা শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ। যেকোনওভাবে জানমালের অধিকতর ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে চাচ্ছে তারা।

থাই দুর্যোগ প্রতিরোধ ও প্রশমন বিভাগ জানায়, গ্রীষ্মমণ্ডলীয় ঝড় দিয়ানমুর ফলে এ বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। এতে মধ্যাঞ্চলসহ ৩০টি প্রদেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। 

এ অবস্থায় উজানে বাঁধ খুলে দেয়ার পর চাও ফ্রেয়া নদীর পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ব্যাংকক থেকে প্রায় ৬০ কিমি (৪০ মাইল) উত্তরে পুরোনো রাজধানী আয়ুথায়া সহ প্রাচীন প্রত্নতাত্ত্বিক ধ্বংসাবশেষ এবং অন্যান্য স্থান রক্ষায় বাঁধ তৈরি করেছেন সেনাবাহিনীর সদস্যরা। একই সঙ্গে বালির ব্যাগ ফেলেছেন তারা।

ব্যাংককের মেট্রোপলিটন প্রশাসন জানায়, চাও ফ্রেয়া নদীর পানির স্তর পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। পাশাপাশি পানির পাম্পও প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

ব্যাংককের গভর্নর অশ্বিন কোয়ানমুয়াং বলেন, পানির স্তর বাড়ার কোনো লক্ষণ কিংবা হঠাৎ বন্যার আশঙ্কা দেখলে আমরা মানুষকে সতর্ক করব।

জাগরণ/এমএ