• ঢাকা
  • বুধবার, ০২ ডিসেম্বর, ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২০, ২০১৯, ০২:১৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ২০, ২০১৯, ০২:১৮ পিএম

কুড়িগ্রামে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস

কুড়িগ্রাম সংবাদদাতা
কুড়িগ্রামে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস

কুড়িগ্রামের উপর দিয়ে গত তিনদিন ধরে বয়ে যাচ্ছে মৃদু শৈত্য প্রবাহ। তাই দিনের বেলা মিলছে না সূর্য্যের দেখা। ফলে বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে এ জেলার মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা।

শুক্রবার (২০ ডিসেম্বর) জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১০ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা গতকালের তুলনায় ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেলেও উত্তরের হিমেল হাওয়া ও কনকনে ঠাণ্ডা অব্যাহত রয়েছে। তার সঙ্গে ঘন কুয়াশায় ভোগান্তি বাড়ছে মানুষের। গরম কাপড়ের অভাবে চরম দুর্ভোগে পড়েছে শিশু-বৃদ্ধসহ শ্রমজীবী ও ছিন্নমুল মানুষেরা। 

কুড়িগ্রামের রাজারহাট কৃষি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ অফিস সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১০ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা গতকালের চেয়ে ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি। তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেলেও শীতের তীব্রতা আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ অফিস। 

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের চর যাত্রাপুর গ্রামের বক্তার আলী ও উমর আলী বলেন, গত তিন দিন ধরে সূর্য উঠছে না। খুব ঠাণ্ডা, তাই ঘর থেকে বাহিরে যেতে পাচ্ছি না। কাজও করতে পারছি না খুব বিপদে আছি। শীতে জমির ফলনো নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। গবাদি পশুরাও বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। সবমিলেই আমরা খুব কষ্টে আছি।

এ অবস্থায় জেলার চরাঞ্চলের মানুষেরা খড়-কুটো জ্বালিয়ে ঠাণ্ডা নিবারনের চেষ্টা করছেন। শিশু, বৃদ্ধ ও গবাদি পশু নিয়ে বিপাকে পড়েছে চরাঞ্চলের বাসিন্দারা।

টিএফ


 

আরও পড়ুন