• ঢাকা
  • রবিবার, ২৬ মে, ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: মার্চ ৪, ২০১৯, ০৯:১৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৩, ২০১৯, ০৯:৩৮ পিএম

রোবোটিক্স নিয়ে ঢাবিতে সেমিনার অনুষ্ঠিত

ঢাবি সংবাদদাতা
রোবোটিক্স নিয়ে ঢাবিতে সেমিনার অনুষ্ঠিত
ছবি- জাগরণ

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় রোবোটিক্স এন্ড মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ ও চ্যানেল আই এর যৌথ উদ্যোগে ‘ফিউচার অব রোবোটিক্স এন্ড দ্য অপরচুনিটি ফর বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (০৪ মার্চ) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আরআই খান মিলনায়তনে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ।

সেমিনারে ‘ফিউচার অব রোবোটিক্স এন্ড দ্য অপরচুনিটি ফর বাংলাদেশ’ শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মেহেদী শামস। ঢাবি রোবোটিক্স এন্ড মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারপার্সন ড. লাফিফা জামালের সভাপতিত্বে সেমিনারে অন্যান্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন আইবিএ’র পরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ ফারহাত আনোয়ার, চ্যানল আই-এর পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ এবং রবি আজিয়াটা লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মাহতাব উদ্দিন আহমেদ।

সেমিনারে জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৭ই মার্চের ভাষণ রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক রূপকল্প দিয়েছিলেন। আমরা জাতির জনকের স্বপ্নের সেই সোনার বাংলা গড়তে একটি শ্রমভিত্তিক অর্থনীতি থেকে জ্ঞানভিত্তিক অর্থনীতিতে রপান্তরিত হওয়ার চেষ্টা করছি। এই উন্নয়ন যাত্রায় তথ্য প্রযুক্তি হচ্ছে প্রধান হাতিয়ার। তথ্যপ্রযুক্তির বিকাশে বর্তমান সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়নে সব ধরণের সহযোগিতা করছে বর্তমান সরকারের আইসিটি বিভাগ।

অধ্যাপক সামাদ বলেন, শিক্ষা ও গবেষণায় আমাদের আরও গুরুত্ব দেয়া দরকার। বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তির ক্ষেত্রে সমসাময়িক উদ্ভাবন ও এর প্রায়োগিক দিক উল্লেখ করে তিনি বলেন, কৃষিখাতসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে তথ্যপ্রযুক্তির অবদান অপরিসীম। বাংলাদেশের সর্বত্র কৃষিতে নতুন প্রযুক্তির আরও ব্যাপক ব্যবহার প্রয়োজন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ ২০১৮ সালের আন্তর্জাতিক রোবট অলিম্পিয়াডে প্রথমবার অংশগ্রহন করে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে গঠিত তিনটি টিম-‘রোবো টাইগার’, ‘টিম বাংলাদেশ’ এবং ‘রোবো চ্যালেঞ্জার’ এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করে গোল্ড মেডেলসহ বিভিন্ন পুরস্কার অর্জন করে। অনুষ্ঠানে আন্তর্জাতিক রোবট অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহনকারীদেরও সম্মাননা জানানো হয়।

 

এসএইচএস 


 
 

Space for Advertisement