• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই, ২০২০, ৩১ আষাঢ় ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২১, ২০২০, ০৮:২৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২১, ২০২০, ০৮:২৬ পিএম

মুশফিকের সিদ্ধান্তে সম্মান আছে রিয়াদের

ক্রীড়া ডেস্ক
মুশফিকের সিদ্ধান্তে সম্মান আছে রিয়াদের

পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ। সপ্তাহখানেক আগেও এটা ছিল অনিশ্চিত। তবে দুবাইয়ে এক মিটিংয়েই ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে বদলে যায় সে সিদ্ধান্ত। তবে বদলে যাননি একজন, মুশফিকুর রহিম। আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন পাকিস্তান সফরে যাবেন না তিনি, সিরিজ নিশ্চিত হওয়ার পরও সে সিদ্ধান্তে অনঢ় আছেন দেশসেরা এই ব্যাটসম্যান। 

পাকিস্তানে না যাওয়ার পেছনে পরিবারের নিষেধকেই কারণ হিসেবে দেখিয়েছেন মুশফিক। কিন্তু বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ তার আত্মীয়। সর্ম্পকে তারা ভায়রা-ভাই। মুশফিকের মত রিয়াদেরও সিদ্ধান্ত নেয়া কঠিনই ছিল। পাকিস্তান সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিচ্ছে বলে রিয়াদ রাজি করাতে পেরেছেন পরিবারকে। তবে পূর্ণ সমর্থন দিয়েছেন মুশফিকের সিদ্ধান্তকেও।

এ প্রসঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে রিয়াদ বলেন, ‘প্রথমে অবশ্যই কঠিন ছিল। কারণ আমার পরিবারও কনসার্ন ছিল। আমি আমার পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছি। তো ওরা রাজি হয়েছে। এদিক থেকে আমি কিছুটা নিশ্চিন্ত, যেহেতু আমার পরিবার এতোটা স্ট্রেস ফিল করবে না। কারণ পাকিস্তান আমাদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তাই দিচ্ছে।’

অন্যদিকে পরিবারের চাইতে বড় ইস্যু কোন মানুষের জন্য থাকতে পারেনা উল্লেখ করে মুশফিক প্রসঙ্গে যোগ করেন, ‘আর মুশির সিদ্ধান্ত আমিও সমর্থন করি। পরিবারের একটা ইস্যু থাকে সবসময়। পরিবারের চাইতে বড় ইস্যু কোনও ক্রিকেটারের বা কোনও সাধারণ মানুষের হতে পারে না। মুশফিকের সিদ্ধান্তের প্রতি আমার পূর্ণ সমর্থন আছে।’

এদিকে দলে সুযোগ পেয়েছেন বেশিরভাগ তরুণ ক্রিকেটার। নিরাপত্তা ইস্যুতে নানা নাটকীয়তার পর চূড়ান্ত হওয়া সিরিজে তাদের মানসিক অবস্থা কেমন জানাতে গিয়ে টি-টোয়েন্টি কাপ্তান বলেন, ‘এই মুহূর্তে আমি একটা কথা বলতে পারি। দলের অন্যান্য মেম্বাররা এই ব্যাপারে চিন্তিত নয়। সিদ্ধান্ত নেয়া হয়ে গেছে। আমরা শুধু খেলার কথাই চিন্তা করছি। কীভাবে ওখানে গিয়ে ভালো পারফর্ম করতে পারব এবং জিততে পারব- এটা নিয়ে আমরা চিন্তিত।’

এমএইচবি