• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: অক্টোবর ২৫, ২০২০, ০১:৫৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ২৫, ২০২০, ০১:৫৩ পিএম

অলিম্পিক সামনে রেখে টোকিওতে অ্যাকুয়াটিক্স সেন্টারের উদ্বোধন 

ক্রীড়া ডেস্ক
অলিম্পিক সামনে রেখে টোকিওতে অ্যাকুয়াটিক্স সেন্টারের উদ্বোধন 
গত ফেব্রুয়ারিতে অ্যাকুয়াটিক্স সেন্টারের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলেও করোনার কারণে উদ্বোধন পিছিয়ে যায়। ফটো: অলিম্পিক ওয়েবসাইট

আগামী বছর অনুষ্ঠেয় টোকিও অলিম্পিকের আর্টিস্টিক সুইমিং, ডাইভিং ও সুইমিং ডিসিপ্লিনের জন্য নবনির্মিত টোকিও অ্যাকুয়াটিক্স সেন্টার উদ্বোধন করা হয়েছে। গত ফেব্রুয়ারিতে নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলেও করোনাভাইরাসের কারণে এর উদ্বোধন পিছিয়ে গিয়েছিল। 

অনাড়ম্বর এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে টোকিও অ্যাকুয়াটিক্স সেন্টারের উদ্বোধন করা হয়। অলিম্পিকের জন্য প্রায় ৫২ কোটি ডলার ব্যয়ে নির্মাণ করা হয় টোকিও অ্যাকুয়াটিক্স সেন্টার। প্রদর্শনী সাঁতারে অংশ নেন জাপানের বিখ্যাত সাঁতারু রিকাকো ইকি। লিউকেমিয়া (ব্ল্যাড ক্যান্সার) জয় করে আসা এই সাতারুই যেন অলিম্পিকের প্রতিচ্ছবি।

করোনা ভাইরাসের কারণে থমকে গিয়েছিল পুরো বিশ্ব। ক্রীড়াঙ্গনেও এর প্রভাব পড়েছিল। এ বছরের জুলাই-আগস্টে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল টোকিও অলিম্পিক। তবে নতুন সূচিতে আগামী বছরের ২৩ জুলাই শুরু হয়ে ৮ আগস্ট শেষ হবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রীড়াযজ্ঞ। 

ধীরে ধীরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হচ্ছে। নিউ নরম্যাল শব্দটার মতোই, পরিস্থিতির সাথেও মানিয়ে নিতে শুরু করেছে বিশ্ব। এরই মধ্যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট-ফুটবলসহ বিভিন্ন দেশে ঘরোয়া লীগের খেলা শুরু হয়েছে। করোনার জন্য মানা হচ্ছে কিছু বিধি-নিষেধ। তাই আগামী বছর সফলভাবে গেমস আয়োজনের ব্যাপারে আশাবাদী টোকিওর গভর্নর ইউরিকো কোইকে। তিনি বলেন, বলেন, বেশ কিছু অনাকাঙ্খিত ঘটনার জন্য গেমস পিছিয়ে দিতে হয়েছে। তবে আমরা একটি সফল গেমস আয়োজনের ব্যাপারে আশাবাদী। সাঁতারু রিকাকো ইকি যেমন একটা যুদ্ধ জয় করে পুলে ফিরেছেন, তা দেখে আমরাও অনুপ্রাণিত।

অলিম্পিক চলাকালীন স্টেডিয়ামে দর্শকদের উপস্থিতি থাকবে কি না; এ নিয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি। তবে নবনির্মিত অ্যাকুয়াটিক্স সেন্টার মাতবে বিশ্বের শীর্ষ সাঁতারুরা এমনটাই আশা করছেন টোকিওর গভর্নর। তার ভাষ্য, আশা করছি এই অ্যাকুয়াটিক্স সেন্টারে বিশ্বের সেরা সাতারুরা তাদের নৈপূণ্যে দেখাবে। আমরা চাই দর্শকরা গ্যালারিতে বসে খেলার সাক্ষী হোক। তবে স্টেডিয়ামে দর্শক উপস্থিতির বিষয়ে আমরা এখনো সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারিনি। নগর সরকার এ বিষয়ে বেশ সতর্ক।


এসইউ