• ঢাকা
  • বুধবার, ০৩ মার্চ, ২০২১, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১, ১২:৪৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১, ১২:৪৯ পিএম

পেনাল্টিতেই আশা-হতাশা বার্সেলোনার 

পেনাল্টিতেই আশা-হতাশা বার্সেলোনার 

চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ১৬ এর প্রথম লেগে পিএসজির কাছে ৪-১ গোলে হেরে বেশ বিধ্বস্ত ছিলো বার্সেলোনা। গতকাল কাদিচের বিপক্ষে তাই জয়ের জন্যই ঘরের মাঠে নেমেছিলো রোনাল্ড কোম্যানের শিষ্যরা। প্রথমার্ধের পেনাল্টিতে লিওনেল মেসি জয়ের আশা জিইয়ে রাখলেও দ্বিতীয়ার্ধের শেষ মিনিটে সেই গোল পরিশোধ করে কাদিচ, সেটিও পেনাল্টিই ছিলো। ফলে হতাশার ড্র উপহার পেতে হয়েছে দলটিকে। 

চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচে হারের পর অন্তত নিজের রেকর্ড গড়ার ম্যাচে জয় প্রত্যাশা করেছিলেন মেসি। বার্সেলোনার হয়ে ৫০৬তম ম্যাচে মাঠে নামছেন তিনি, যা এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ। এর আগে এই রেকর্ড ছিলো তার সাবেক সতীর্থ জাভির দখলে। এমন ম্যাচে জয়ের দিকেই এগোচ্ছিলেন তিনি। ৩২তম মিনিটে প্রতিপক্ষের স্যালভি এবং আইজ্যাক কারসেলেন ডি-বক্সের মধ্যে ফাউল করে বসেন পেদ্রিকে। সেই পেনাল্টি থেকে গোল করেন মেসি। এরপরেও বেশ কয়েকটি আক্রমণ করেছিলেন অ্যান্টনিও  গ্রিজম্যান এবং ডি ইয়ং, কিন্তু সেগুলো ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক জেরেমিয়া লেদেজমা।

তবে ৮৯ মিনিটের সময় ক্লেমেন্ট লেংলেট ডি-বক্সে ফাউল করে বসেন প্রতিপক্ষের সোব্রিনোকে। আর এই খেসারত দিতে হয় বার্সেলোনাকে পেনাল্টির মুখোমুখি হয়ে। অ্যালেক্স ফার্নান্দেজের গোলে সমতায় ফেরে কাদিচ। এর ফলে লা লিগায় টানা সাত ম্যাচ জয়ের রেশ কাটলো বার্সার, পেয়েছে তিক্ত ড্রয়ের স্বাদ। 

এই ম্যাচে জয় পেলে টেবিলের শীর্ষে থাকা অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের সঙ্গে ব্যবধান কমতো বার্সেলোনার। তবে ক্যাম্প ন্যুতে এমন ড্রয়ের ফলে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে চারে চলে যাবার, যদি পরের ম্যাচে ওসাসুনাকে সেভিয়া হারাতে পারে। তবে আগামী বুধবার রাতে এলচে এবং তার তিনদিন পর সেভিয়ার মুখোমুখি হবে বার্সা, সেখানেও ভালো করতে পারলে ট্রফির স্বপ্ন দেখতে পারেন কোম্যান।