• ঢাকা
  • বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮
প্রকাশিত: মে ১৫, ২০২১, ১১:৪২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ১৫, ২০২১, ১১:৪২ পিএম

বোলাররা সবই জানতেন, বোমা ফাটালেন ব্যানক্রফট! 

বোলাররা সবই জানতেন, বোমা ফাটালেন ব্যানক্রফট! 

নিউল্যান্ডে ২০১৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষের টেস্ট ম্যাচে বল টেম্পারিংয়ের দায়ে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন তিনজন অস্ট্রেলীয় তারকা। এক বছর করে ডেভিড ওয়ার্নার এবং স্টিভেন স্মিথ নিষিদ্ধ ছিলেন, সাথে ক্যামেরন ব্যানক্রফটকে নয় মাসের নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়। নিষেধাজ্ঞা শেষ, তবে ব্যানক্রফটের ফাটানো নতুন বোমায় আবারও নড়েচড়ে বসেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। 

বর্তমানে স্মিথ এবং ওয়ার্নার খুব ভালোভাবে ক্রিকেটে জায়গা পেলেও নিষেধাজ্ঞা কাটানো ব্যানক্রফটকে অস্ট্রেলিয়া দলে দেখা যায়নি দীর্ঘদিন। বর্তমানে ডুরহ্যামে কাউন্টি ক্রিকেট খেলছেন তিনি। সেখানে দ্যা গার্ডিয়ানের ডোনাল্ড ম্যাকরে কে এক সাক্ষাতকার দেয়ার সময় নতুন দিক তুলে ধরেন তিনি। 

ব্যানক্রফট বলেন, “দেখুন, আমি শুধু আমার করা কাজটুকুর জন্য দায়ী এবং দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়েছি। হ্যাঁ, আমি যা করেছি তা বোলারদের সুবিধা দিতো এবং বোলাররা এটিই জানতো, যা স্বতস্ফুর্ত। আমি এই অভিজ্ঞতা থেকে শিখেছি কখন থামা উচিৎ এবং আমার এই শিক্ষা আরও আগে থাকলে ভালো সিদ্ধান্ত নিতে পারতাম। আমি মনে করি, ঘটনাটা সবাই স্বস্তস্ফুর্তভাবে জানতো।” 

এমন মন্তব্যের পর আজ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া জানিয়েছে, নির্বাহীরা এখনও নিউল্যান্ড টেস্টের যেকোনো ধরণের তথ্য নিয়ে কাজ করতে রাজি। তাৎক্ষণিকভাবে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সেই সময়ের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত ছিলো। এমনকি যদি ১১ জনকেই জড়িত পাওয়া যেতো টেম্পারিংয়ের সাথে, সেক্ষেত্রে নতুন ১১ জনকেও পাঠানোর পরিকল্পনা ছিলো বোর্ডের। তবে ব্যানক্রফট কিংবা যে কেউই নতুন কোনো তথ্য দিলে তা বিবেচনা করবে এবং অনুসন্ধান চালাবে বোর্ড। 

এমন ঘটনার কিছুদিন পর অজি কোচ ড্যারেন লেহম্যান পদত্যাগ করেন। শাস্তি হিসেবে ওয়ার্নার আর কখনও  কোনো ফরম্যাটের অধিনায়কত্ব পাবেন না। ব্যানক্রফটেরও ফেরা কঠিন। তবে নতুন করে কেউ শাস্তি পেয়ে বসেন কিনা, সেটিই এখন দেখার বিষয়।