• ঢাকা
  • বুধবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮
প্রকাশিত: জানুয়ারি ৯, ২০২২, ০৯:২৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ৯, ২০২২, ০৩:২৪ পিএম

সাকিবের অলরাউন্ডার নৈপুণ্যে হার আশরাফুল-ইমরুলদের

সাকিবের  অলরাউন্ডার নৈপুণ্যে হার আশরাফুল-ইমরুলদের
ফাইল ফটো।

টি-টোয়েটি বিশ্বকাপ খেলতে গিয়ে চোটে পড়েন সাকিব আল হাসান। একই কারণে খেলতে পারেননি ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে। পারিবারিক কারণে ছুটি নেয়ায় নিউজিল্যান্ড সফরে যাননি সাকিব। দীর্ঘদিন পর ঘরোয়া ক্রিকেট দিয়ে ফিরলেন বাইশ গজে। পঞ্চাশ ওভারের ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক ক্রিকেট টুর্নামেন্ট স্বাধীনতা কাপে ব্যাট হাতে সাকিব খেলেছেন ৩৫ রানের ইনিংস। বোলিংয়ে মাত্র ২৪ রান দিয়ে নেন ২ উইকেট।

সাকিবের অলরাউন্ডার পারফরম্যান্সের সঙ্গে সৌম্য সরকার, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মোহাম্মদ মিঠুনদের কল্যাণে ইসলামি ব্যাংক পূর্বাঞ্চলকে ২২ রানে হারিয়েছে ওয়েলটন মধ্যাঞ্চল। ম্যাচে আগে ব্যাট করে মধ্যাঞ্চল করে ১৭৭ রান। জবাব দিতে নেমে মাত্র ১৫৫ রানে গুটিয়ে যায় পূর্বাঞ্চল।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে মধ্যাঞ্চলকে ব্যাটিংয়ে পাঠান পূর্বাঞ্চলের অধিনায়ক ইমরুল কায়েস। তাদের উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৩৬ রান। ১৩ রান করা সৌম্য সরকার জাতীয় দলের সতীর্থ রুবেল হোসেনের বলে বোল্ড হলে ভাঙে এই জুটি। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৭ রানের ইনিংস খেলেন মিঠুন, ওপেনার মিজানুর রহমান করেন ৩৬ রান। ৩৫ রান আসে সাকিবের ব্যাট থেকে। ৫৮ বলে ২টি চার মারেন সাকিব।

লেজের দিকের ব্যাটসম্যানরা বড় ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হলে দ্রুত উইকেট হারিয়ে ১৭৭ রানেই গুটিয়ে যায় মধ্যাঞ্চল। ম্যাচে পূর্বাঞ্চলের হয়ে তিনটি করে উইকেট নেন রুবেল হোসেন ও রেজাউর রহমান রাজা। দুটি শিকার তানভীর ইসলামের। একটি করে উইকেট নেন নাঈম হাসান এবং আলাউদ্দিন বাবু।

১৭৮ রানের লক্ষ্য টপকাতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায় পূর্বাঞ্চল। আবু হায়দার রনি হলে আশরাফুল আউট হন রানের খাতা খোলার আগেই। তবে রনি তালুকদার ও ইমরুল কায়েস ৬৪ রানের জুটি গড়ে সেই ধাক্কা সামাল দেন। তবে দ্রুততম সময়ে এই দুই ব্যাটাসম্যাম বিদায় নিলে চাপে পড়ে পূর্বাঞ্চল। সেই চাপ কাটিয়ে উঠতে দেননি সাকিব-মোসাদ্দেকরা। ১০ ওভারে ২ মেডেন দিয়ে ২৪ রান খরচে ২ উইকেট পান সাকিব আল হাসান। অধিনায়ক সৈকত ১০ ওভারে ৪ মেইডেনে মাত্র ১৩ রানে নেন ১ উইকেট।

ইরফান শুক্কুর ৩১ ও নাদিফ চৌধুরী ২৮ রান করে আউট হলে ৪৭.১ ওভারে ১৫৫ রানে অলআউট হয় পূর্বাঞ্চল। ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

 

এসকেএইচ//