• ঢাকা
  • বুধবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: নভেম্বর ১, ২০১৯, ০৬:২০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ১, ২০১৯, ০৬:২০ পিএম

বাজার দর

পেঁয়াজের ঝাঁজ কিছুটা কমেছে, চড়া ডিম-রসুন-ইলিশ

জাগরণ প্রতিবেদক
পেঁয়াজের ঝাঁজ কিছুটা কমেছে, চড়া ডিম-রসুন-ইলিশ

অবশেষে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। রাজধানীতে কেজিপ্রতি ১০-১৫ টাকা কমেছে নিত্যপণ্যটির দর। ব্যবসায়ীরা বলছেন, ভারত থেকে নতুন করে আমদানির খবরে এমন পরিস্থিতি। বাজারে আসছে শীতের সবজি। তবে দাম বেশ চড়া। আর নিষেধাজ্ঞা না থাকায় বেড়েছে ইলিশের সরবরাহ।

শুক্রবার (১ নভেম্বর) সাপ্তাহিক ছুটির দিনে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে ঢল নামে ক্রেতা সকাল থেকে। শীতের আমেজ শুরুর সাথে সাথে আসতে শুরু করেছে সবজি। সরবরাহ পর্যাপ্ত থাকলেও দাম কিছুটা চড়া। মান ও প্রকারভেদে ২০ থেকে ১০০ টাকা গুনতে হচ্ছে ক্রেতাদের। 

মাছের বাজারে সরবরাহও ভালো। নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ায় বাজারজুড়ে মাছের রাজা ইলিশের রাজত্ব। অন্যান্য মাছের দামও আছে হাতের নাগালে। তেল-মসলা দামও রয়েছে স্বাভাবিক।

পেঁয়াজের বাজার এখনও স্বাভাবিক হয়ে আসে নি। তবে ক্ষেত্রবিশেষে কিছুটা কমেছে। রাজধানীর কারওয়ান বাজারে দেশি পেঁয়াজের পাইকারি বিক্রি ছিলো ১৩৫-১৪৫ টাকা কেজি। আমদানিকৃত পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১২৫-১৩৫ টাকা কেজিতে। খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে দেশি পেঁয়াজ ১৪০-১৫৫ টাকা কেজিতে। আর আমদানিকৃত পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৩০-১৪০ টাকা কেজিতে।

লেয়ার মুরগির ডিমের হালি এখন ৪০ টাকা আর ডজন বিক্রি হচ্ছে ১১৫ টাকায়। হাঁসের ডিমের ডজন ১৫০ টাকা। খুচরা বাজারে সে দাম রাখা হচ্ছে ১০ থেকে ১৫ টাকা বেশি। পাশাপাশি নতুন করে দাম বাড়ছে রসুনেরও।

দেশি রসুন প্রতি কেজি পাইকারি বিক্রি হচ্ছে ১৪০-১৫০ টাকা দরে। আমদানিকৃত রসুন বিক্রি হচ্ছে ১৩০-১৪০ টাকা দরে। খুচরা বাজারে রসুনের দাম বিক্রি হচ্ছে কেজিতে ১৫-২০ টাকা বেশি দরে।

রাষ্ট্রায়ত্ত বিপণন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) বলছে, পেঁয়াজের ছোঁয়াতেই বাড়ছে রসুনের দামও।

সামান্য বেড়েছে চিনির দাম। গরু ও খাসির মাংস এবং মুরগিরর দাম রয়েছে আগের মতোই।

এসএমএম

আরও পড়ুন