• ঢাকা
  • শনিবার, ০৮ আগস্ট, ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৩০, ২০১৯, ০২:৩৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ৩০, ২০১৯, ০৩:৩০ পিএম

ইন্টারনাল মেডিসিন ইন্সটিটিউট সংক্রান্ত অধ্যাপক ফয়জুলের ধারণাপত্র

জাগরণ প্রতিবেদক
ইন্টারনাল মেডিসিন ইন্সটিটিউট সংক্রান্ত অধ্যাপক ফয়জুলের ধারণাপত্র
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান হাতে তুলে দেয়া হচ্ছে ধারণাপত্র-ছবি : ফটো রিলিজ

মানুষের দুর্ভোগ লাঘবে এক ছাতার নিচে সকল চিকিৎসা নিশ্চিত করতে ইন্টারনাল মেডিসিন ইন্সটিটিউট স্থাপনে একমত পোষণ করে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণে সরকারের প্রতি আহবান জানিয়েছেন দেশের বিশিষ্টজনরা।

রোববার (২৯ ডিসেম্বর) পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ইন্টারনাল মেডিসিন ইন্সটিটিউট স্থাপনের প্রয়োজনীয়তা শীর্ষক এক সেমিনারে এ আহবান জানান হয়।

সেমিনারে ‘ওয়ান স্টপ সার্ভিস অব পেশেন্ট অব মাল্টি অর্গান ডিজিজেস’ শীর্ষক ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিনের সাবেক সহ সভাপতি ও সেক্রেটারি জেনারেল অধ্যাপক ডা. মো. ফয়জুল ইসলাম চৌধুরী। পরে এ সম্পর্কিত একটি প্রস্তাবনা তিনি পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানের হাতে তুলে দেন।

এফআরসির চেয়ারম্যান ও সাবেক স্বরাষ্ট্রসচিব সি কিউ কে মুসতাক আহমদের সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান ও প্রধান তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমেদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, অধ্যাপক ডা. ফয়জুল ইসলাম চৌধুরীর এই উগ্যোগ খুবই প্রশংসনীয়। দেশে ইন্টারনাল মেডিসিন ইন্সটিটিউট স্থাপন একটি চমৎকার ধারণা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এ ধরনের উদ্যোগ গ্রহণে বেশ আগ্রহী হবেন।

মন্ত্রী পুরো বিষয়টির প্রজেক্ট প্রোফাইল তৈরির পরামর্শ দিয়ে এ বিষয়ে তিনি সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

সেমিনারে বক্তারা বলেন, দেশে হৃদরোগ, কিডনি, ইএনটি, বাতজ্বর, বার্ন, চক্ষু, অর্থোপেডিক্সসহ বিভিন্ন রোগের বিশেষায়িত হাসপাতাল বা ইন্সটিটিউট থাকলেও ইন্টারনাল মেডিসিন বিষয়ক কোনও বিশেষায়িত প্রতিষ্ঠান নেই। অথচ গড় আয়ু বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষ নানা ধরনের রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। এসব রোগাক্রান্ত মানুষকে যাতে একই ছাতার নিচে সব ধরনের রোগের চিকিৎসা প্রদান করা যায়, সেজন্য দেশে দরকার একটি বিশেষায়িত ইণ্টারনাল মেডিসিন ইন্সটিটিউট। এটি প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হলে চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন স্থানে ছোটাছুটি করতে হবে না। তারা একই হাসপাতালে সব ধরনের চিকিৎসার সুযোগ পাবেন।

বক্তারা ইণ্টারনাল মেডিসিন ইন্সটিটিউট স্থাপনে গুরুত্বারোপ করে বলেন, দেশে চিকিৎসা সেবায় মানুষের আস্থা সঙ্কট প্রকট। যে কারণে চিকিৎসার জন্য বিদেশে যাওয়ার প্রবণতা দিন দিন বাড়ছে। এই অবস্থায় সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থায় মানুষের আস্থা ফিরিয়ে আনা। এক ছাতার নিচে সব চিকিৎসা নিশ্চিত করতে পারলে মানুষের আস্থা ফিরিয়ে আনা সম্ভব।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিনের নির্বাহী কমিটির নেতৃবৃন্দ অধ্যাপক ডা. ফয়জুল ইসলাম চৌধুরীর ধারণাপত্রের ভুয়সি প্রশংসা করে মানুষের কল্যাণে তার এই স্বপ্ন বাস্তবায়নে সরকারকে উদ্যোগ গ্রহণের আহবান জানান।

এসএমএম

আরও পড়ুন