• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

মুজিববর্ষ
প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৯, ২০২০, ০৬:১৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ১৯, ২০২০, ০৬:১৬ পিএম

ঢাকাকে নিরাপদ বাসযোগ্য করা হবে : ইশরাক

জাগরণ প্রতিবেদক
ঢাকাকে নিরাপদ বাসযোগ্য করা হবে : ইশরাক
গণসংযোগ করেন ইশরাক হোসেন-ছবি : জাগরণ

গ ণ সং যো গ

......

মেয়র নির্বাচিত হলে ঢাকাকে নিরাপদ বাসযোগ্য ও সিটি করপোরেশনকে দুর্নীতিমুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোশনের বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন।

তিনি বলেন, সিটি করপোরেশনকে দুর্নীতিমুক্ত করার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট ৫২টি প্রতিষ্ঠানকে একসাথে নিয়ে কাজ করবো। এজন্য শুধু সরকারের সদিচ্ছা প্রয়োজন।

রোববার (১৯ জানুয়ারি) নির্বাচনি প্রচারণার ১০ম দিনে আজিমপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে গণসংযোগকালে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময়  বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন নবী খান সোহেল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, বিএনপি নেতা মীর শরাফত আলী সফু, এসএম জিলানী, যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু, রফিক শিকদার, শরিফ হোসেন, ওলামা দলের নেতা মাওলানা রফিকুল ইসলামসহ বিভিন্ন ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী এবং স্থানীয় বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন। 

এর আগে সকালে বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন দলের মহসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দসহ ইশরাক হোসেন।

শ্রদ্ধা ও মোনাজাত শেষে আজিমপুর ছাপড়া মসজিদ, আজিমপুর কবরস্থান, জগন্নাথ সাহা রোড ও লালবাগে গণসংযোগ করেন তারা।

ইশরাক বলেন, ১ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনকে বিভিন্নভাবে প্রভাবিত করার ষড়যন্ত্র চলছে। এ ব্যাপারে সজাগ থাকতে হবে। কারণ ১ ফেব্রুয়ারির নির্বাচন হচ্ছে ঢাকাকে ধ্বংসের কবল থেকে রক্ষা, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তির একটি সুযোগ। কোনওভাবেই সেই সুযোগকে হাতছাড়া করা যাবে না।

তিনি বলেন, নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে ঢাকা পৃথিবীর সবচেয়ে অবাসযোগ্য একটি শহরে পরিণত হয়েছে। এই সরকার দীর্ঘ সময় ধরে ক্ষমতায় থেকেও এই শহরের পরিবর্তন আনতে পারেনি। তাই একটি পরিবর্তন দরকার।

তিনি বলেন, নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণের সময়ই কমিশনের উচিত ছিল পূজার বিষয়টা বিবেচনা করা। তাহলে নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনজনিত কারণে পরীক্ষার্থীদের বিপাকে পড়তে হতো না। 

টিএস/এসএমএম

আরও পড়ুন